মুন্সীগঞ্জে শিক্ষার্থীর চুল কেটে নেওয়ার ঘটনায় শিক্ষিকা বরখাস্ত

এ ঘটনায় প্রথমে ছয় শিক্ষার্থীর কথা বলা হলেও পরে আরও দুইজন অভিযোগ করে।

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Feb 2024, 02:18 PM
Updated : 29 Feb 2024, 02:18 PM

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় ‘হিজাব না পরায়’ সপ্তম শ্রেণির আট শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় শিক্ষিকা রুনিয়া সরকারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

ওই শিক্ষিকাকে বরখাস্তের পাশাপাশি ঘটনাটি তদন্তে সিরাজদিখান উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান ভূঁইয়াকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার সৈয়দপুর আব্দুর রহমান স্কুল অ্যান্ড কলেজে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাব্বির আহমেদ।

চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় প্রথম দিকে ছয়জনের কথা বলা হলেও পরে আরও দুই শিক্ষার্থীর বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের কাছে অভিযোগ করেন।

ইউএনও সাব্বির আহমেদ বলেন, শিক্ষার্থী, অভিভাবক, জনপ্রতিনিধি ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার গোলাম মাহমুদ বলেন, “বিষয়টি অনাকাঙ্ক্ষিত। যথাযথ প্রক্রিয়ায় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। প্রয়োজনে ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

বুধবার ওই বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষিকা রুনিয়া সরকার সপ্তম শ্রেণির আট শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেন বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

বিষয়টি জানাজানি হলে প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা ‘ধামা-চাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন’ বলেও অভিযোগ ওঠে। পরে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের চাপে ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ।

ঘটনাটি তদন্ত করে জড়িত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন স্থানীয়রা।

আরও পড়ুন:

মুন্সীগঞ্জে ৬ ছাত্রীর চুল কাটলেন শিক্ষিকা