ইজতেমা থেকে ফেরার পথে ট্রাক উল্টে ৩ মাদ্রাসা ছাত্র নিহত

পুলিশ জানায়, আহত ১২ জনের মধ্যে পাঁচজন ঢাকা মেডিকেল ও সাতজন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ময়মনসিংহ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Feb 2024, 08:41 AM
Updated : 5 Feb 2024, 08:41 AM

টঙ্গী ইজতেমার আখেরি মোনাজাত শেষে ফেরার পথে ময়মনসিংহের ভালুকায় ট্রাক উল্টে তিন মাদ্রাসা ছাত্র নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত অন্তত ১২ শিক্ষার্থী ঢাকা ও ময়মনসিংহে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের ভালুকা উপজেলার ঢালিবাড়ী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে ভরাডোবা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান।

নিহতরা হল- জেলার গফরগাঁও উপজেলার আবুল কালাম আকন্দের ছেলে মো. নাঈম আকন্দ (১৩), ভালুকার পাইলাবর এলাকার ফারুক খানের ছেলে সানাউল্লাহ সজল (১৯) এবং ফজলু হক (১৮)। তার বাবার নাম জানা যায়নি।

তারা সবাই ভালুকার জামিয়া ইসলামিয়া দারুস সুন্নাহ কওমি মাদ্রাসার শিক্ষার্থী।

ট্রাকে থাকা মাদ্রাসাটির শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বরাত দিয়ে হাইওয়ে থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, “ওই কওমি মাদ্রাসার ৩০ জন ছাত্র-শিক্ষক টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে যান।

তিনি বলেন, রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে আখেরি মোনাজাত শেষ হলেও যানবাহনের সংকটের কারণে রাতে একটি ট্রাকে করে তারা মাদ্রাসায় ফিরছিলেন। পথে ভালুকা উপজেলার ঢালিবাড়ী মোড়ের কাছাকাছি এলে ট্রাকটির সামনে একটি কাভার্ড ভ্যান ইউটার্ন নিতে দেখে সজোরে ব্রেক কষেন চালক।

এতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকটি উল্টে গেলে এক শিক্ষার্থী ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

Also Read: আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে আসার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠাতা হাতেম খান বলেন, “গতরাতে দুর্ঘটনাস্থলে নাঈম মারা যায়। গুরুতর অবস্থায় ঢাকা নেওয়ার পথে ফজলু হককে মৃত্যু হয়। এ ছাড়া ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকালে সানাউল্লাহ সজল মারা গেছেন।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্তব্যরত উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ হাসপাতালে মোট ১৩ শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছিল। এর মধ্যে সকালে সানাউল্লাহ সজল নামে এক ছেলে মারা যায়। বাকি ১২ জনের মধ্যে পাঁচজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। সাতজন এখানে চিকিৎসাধীন আছে।

এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান হাইওয়ে থানার ওসি আতাউর রহমান।