মাহিয়া মাহির মনোনয়নপত্র বাতিল, করবেন আপিল

“ভুয়া স্বাক্ষরের অভিযোগ তুলে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু আমার কাছে প্রমাণ আছে, প্রত্যেকে (ভোটার) নিজে উপস্থিত হয়ে স্বাক্ষর করেছে,” বলেন মাহি।

রাজশাহী প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Dec 2023, 08:03 AM
Updated : 3 Dec 2023, 08:03 AM

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গেছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতা হিসেবে মাহির জমা দেওয়া এক শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষর তালিকায় ‘ভুয়া স্বাক্ষর’ পাওয়ার অভিযোগে মনোনয়নপত্র বাতিলের কথা জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

রাজশাহীর রিটার্নিং কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ জানান, স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে এক শতাংশ ভোটারের স্বাক্ষরের তালিকা জমা দিতে হয়। এর মধ্যে চিত্রনায়িকা শারমিন আক্তার নিপা মাহিয়ার তালিকায় তিনটি নমুনা ভোটারের তথ্য পাওয়া যায়নি। আর একজন ভোটার নয়। তালিকায় ললিতা মান্ডি নামের একজন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোলের ভোটার।

চলচ্চিত্রের জগৎ থেকে রাজনীতির মঞ্চে উঠে নৌকার মনোনয়ন ফরম কিনে আলোচনায় আসেন মাহি। চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের নৌকার মাঝি হতে চাইলেও দলের মনোনয়ন পাননি। এরপর রাজশাহী-১ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে মাঠে লড়ার ঘোষণা দেন।

এখন মনোনয়নপত্র বাতিলের পর কী করবেন জানতে চাইলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে মাহি বলেন, “ভুয়া স্বাক্ষরের অভিযোগ তুলে আমার মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু আমার কাছে প্রমাণ আছে, প্রত্যেকে (ভোটার) নিজে উপস্থিত হয়ে স্বাক্ষর করেছে। সেই ভিডিও আছে। আমি প্রমাণ দেখিয়ে আপিল করব।”

ভোটারদের স্বাক্ষরের পক্ষে ‘যথেষ্ট প্রমাণ’ রয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, “আমার মনোনয়নপত্রটি কেন বাতিল করা হল? আমি সেটি বুঝতে পারছি না। আমি এখন অপেক্ষা করছি সার্টিফায়েড কপি হাতে পাওয়ার জন্য। সেটি হাতে পেলেই আমি আপিল করব।”

আরও ৩ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল

রাজশাহী-১ আসন থেকে মোট ১১ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। রোববার যাচাই-বাছাই করে মাহি ছাড়াও আরও তিনজনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে।

তারা হলেন- আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান আখতার, গোলাম রাব্বানী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের স্ত্রী শাহনেওয়াজ আয়েশা আখতার জাহান ডালিয়া।

রিটার্নিং কর্মকর্তা জানান, প্রতিমন্ত্রীর পত্নী শাহনেওয়াজের স্বাক্ষর তালিকায় সাতটি ভোটারের তথ্য পাওয়া যায়নি। গোলাম রাব্বানীর দেওয়া তিনজন ভোটারের ঠিকানা এবং আকখতারুজ্জামান আখতারের নয়জন ভোটোরের সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে- আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরী, বিএনএফের প্রার্থী আল-সাআদ, তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী জামাল খান দুদু, এনপিপির প্রার্থী নুরুন্নেসা, বাংলাদেশ সাংস্কৃতি মুক্তিজোট প্রার্থী বশির আহমেদ, জাতীয় পার্টি থেকে শামসুদ্দীন মন্ডল ও বিএনএম’র প্রার্থী শামসুজ্জোহা বাবু।

রাজশাহী-২ আসনে ৫ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল

রাজশাহী-২ (সদর) আসনে ১২ জন প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

এরা হলেন- স্বতন্ত্র প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট আবু রায়হান মাসুদ, রোজাউন নবী আল মামুন, জাতীয় পার্টির সাবেক নেতা শাহাবুদ্দিন বাচ্চু ও মো. মনিরুজ্জামান।

রিটার্নিং কর্মকর্তা শামীম আহমেদ জানান, শাফিকুর রহমান বাদশার মনোনয়নপত্র অসম্পন্ন। আর আবু রায়হান মাসুদের দেওয়া আটজন ভোটারের তথ্য এবং রেজাউন নবী আল মামুনের তালিকায় নমুনা ভোটারের স্বাক্ষর সঠিক নয়। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাবুদ্দিনের মনোনয়নপত্র অসম্পন্ন এবং মনিরুজ্জামান তিনটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ঋণখেলাপী।

অপরদিকে, ঋণখেলাপির দায়ে তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী মোহাম্মদ শামীমের মনোনয়নপত্রের বিষয়ে সিদ্ধান্ত বিকেল ৩টা পর্যন্ত ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে।

এই আসনে যাদের বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে, তারা হলেন- বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান এমপি ফজলে হোসেন বাদশা, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও মহানগরের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামাল, মহানগর জাসদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাসুদ সিদ্দিকী শিবলী, মহানগর জাতীয় পার্টির আহবায়ক ও তাদের দলীয় প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন, বিএনএম এর প্রার্থী কামরুল হাসান, মুক্তিজোট প্রার্থী ইয়াসির আলিফ বিন হাবিব ও বাংলাদেশ কংগ্রেস এর প্রার্থী মারুফ শাহরিয়ার।