ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব শুরু

“আমার অভিনীত জেকে ৭১ সিনেমা দিয়ে এ আয়োজন শুরু হতে যাচ্ছে, এজন্য বেশি ভালো লাগছে,” বলেন অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Jan 2023, 08:18 PM
Updated : 14 Jan 2023, 08:18 PM

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ২১তম আসরের পর্দা উঠল শনিবার।

এদিন বিকালে জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উৎসবের উদ্যোক্তা রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদ।

শিল্পকলা একাডেমির সাংস্কৃতিক পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় উদ্বোধনের অনুষ্ঠানিকতা, যা চলবে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত।

কোভিড মহামারী পরবর্তী এ আয়োজনে বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে ৭১টি দেশের ২৫২টি ছবি থাকছে। এরমধ্যে পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা আছে ১২৯টি, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র আছে ১২৩টি, যার মধ্যে বাংলাদেশের ছবি ৮১টি।

বাংলাদেশি চলচ্চিত্রকে প্রাধান্য দেওয়ার চেষ্টার কথা তুলে ধরেন উৎসবের পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল।

অনুষ্ঠানে ফেলুদাখ্যাত পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী বলেন, “এর আগেও এ আয়োজনে নেমন্ত্রণ পেয়েছিলাম। মহামারীর কারণে আসতে পারিনি। আজ আসতে পেরে ভালো লাগছে। এত সুন্দর একটি আয়োজনের জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ।

“আমার অভিনীত জেকে ৭১ সিনেমা দিয়ে এ আয়োজন শুরু হতে যাচ্ছে। এজন্য বেশি ভালো লাগছে। তবে আমি এই সিনেমায় পাকিস্তানি ক্যাপ্টেন চরিত্রে অভিনয় করেছি। আশা করছি, আপনাদের ভালো লাগবে। আমি এ আয়োজনের সফলতা কামনা করছি।”

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, “চলচ্চিত্রের মাধ্যমে মানুষের আচার-আচরণের পরিবর্তন ঘটে। যার ইতিবাচক ও নৈতিবাচক উভয় প্রভাবই আছে। আমার বিশ্বাস, ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের মধ্য দিয়ে সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটবে।”

এফডিসি প্রতিষ্ঠার ইতিহাস তুলে ধরতে গিয়ে তিনি বলেন, “১৯৫০ এর দশকে ঢাকায় চলচ্চিত্র নির্মাণের কোনো সুযোগ ছিল না। ঢাকায় শুটিং করে তার নেগেটিভ নিয়ে যেতে হত পশ্চিম পাকিস্তানের লাহোরে। প্রক্রিয়াকরণ শেষ করে ঢাকা আনতে গেলে লাগত কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স।

“এমন প্রেক্ষাপটে ১৯৫৭ সালে পাকিস্তানের বাণিজ্য ও শ্রম মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ৩৭ বছরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের অধিবেশনে ‘দ্য ইস্ট পাকিস্তান ফিল্ম ডেভলপমেন্ট করপোরেশন বিল ১৯৫৭’ বিলটি উপস্থাপন করেন। সেই বিলটি পাস হয় এবং কার্যকর হয়।”

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এ আয়োজনে সহযোগিতা করার জন্য সংশ্লিষ্ট সব মন্ত্রণালয় এবং সরকারি বেসরকারি কোম্পানি ও সংস্থাসহ সব সহযোগী প্রতিষ্ঠানকে ধন্যবাদ জানান।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘জেকে-৭১’ প্রদর্শিত হয়। এ সময় চলচ্চিত্রটির নির্মাতা ফাখরুল আরেফীন খানসহ শিল্পী ও কলাকুশলীরা উপস্থিত ছিলেন।

বরাবরের মত এবারের উৎসবে এশিয়ান প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, ট্রিবিউট, বাংলাদেশ প্যানারোমো, ওয়াইড অ্যাঙ্গেল, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্ম, স্পিরিচুয়াল ফিল্ম, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম বিভাগে প্রতিযোগিতা করবে অংশগ্রহণকারী চলচ্চিত্রগুলো।

বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণের মধ্য দিয়ে উৎসবের পর্দা নামবে ২২ জানুয়ারি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক