বিগ ব্যাশে না খেলার হুমকি রশিদের

আফগানিস্তানের বিপক্ষে অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ বাতিল করার পর এই বার্তা দিয়েছেন আফগান তারকা লেগ স্পিনার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Jan 2023, 03:28 PM
Updated : 12 Jan 2023, 03:28 PM

এমনিতেই অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলার সুযোগ পায় না আফগানিস্তান। এবার সম্ভাবনা জাগলেও সেই পথ এখন বন্ধ হয়ে গেছে। আফগানদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ বাতিল করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। যা মানতেই পারছেন না রশিদ খান।

যার রেশ ধরে আফগানিস্তানের এই তারকা লেগ স্পিনার বিগ ব্যাশ থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে অ্যাডিলেইড স্ট্রাইকার্সের হয়ে খেলেন রশিদ।

সম্প্রতি তালেবান সরকার আফগানিস্তানে নারীদের উচ্চশিক্ষা বন্ধ করে দেওয়ায় বৃহস্পতিবার দেশটির ছেলেদের দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ বাতিলের ঘোষণা দেয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। আগামী মার্চে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হওয়ার কথা ছিল আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগের অংশ তিন ম্যাচের সিরিজটি।

এরপরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের অবস্থানের কথা জানান রশিদ খান।

“আমাদের বিপক্ষে মার্চের সিরিজটি অস্ট্রেলিয়া বাতিল করে দিয়েছে শুনে আমি সত্যিই হতাশ। আমার দেশের প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে আমি অত্যন্ত গর্বিত। আমরা বিশ্ব মঞ্চে অনেক উন্নতি করেছি। সিএ-এর এই সিদ্ধান্ত আমাদেরকে সেই পথচলায় পিছিয়ে দিয়েছে।”

“আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলা যদি অস্ট্রেলিয়ার জন্য এতটাই অস্বস্তিকর হয়, তাহলে বিগ ব্যাশে আমার উপস্থিতির মাধ্যমে কাউকে আমি অস্বস্তিতে ফেলতে চাই না। তাই ওই টুর্নামেন্টে আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে আমি কঠোরভাবে চিন্তা-ভাবনা করব।”

বিগ ব্যাশের চলতি আসরে স্ট্রাইকার্সের হয়ে ৮ ম্যাচ খেলেছেন রশিদ। দক্ষিণ আফ্রিকার টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে এমআই কেপ টাউনের হয়ে খেলার জন্য অস্ট্রেলিয়া ছেড়ে গেছেন তিনি। বিগ ব্যাশে তার ফেরার সম্ভাবনা এখন ক্ষীণ।

রশিদের আগে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এই সিদ্ধান্ত নিয়ে মন্তব্য করে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (এসিবি)। তাদের চোখে এই পদক্ষেপ ‘দুঃখজনক।’ আইসিসি বরাবর এনিয়ে চিঠি লেখার কথাও জানায় তারা।

এসিবি-এর মতে, ‘খেলা ও স্পোর্টসম্যানশিপের বদলে রাজনৈতিক স্বার্থকে বেশি অগ্রাধিকার দিচ্ছে’ অস্ট্রেলিয়া। এতে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক নষ্ট হচ্ছে বলে মনে করছে তারা।

এসিবি তাদের প্রতিক্রিয়ায় আরও বলেছে যে, অস্ট্রেলিয়া তাদের সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে ‘বিগ ব্যাশে আফগান ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ নিয়ে নতুন করে ভাববে তারা।’ আফগানিস্তানে নারীদের ক্রিকেট নিয়ে অবশ্য কোনো কিছু বলেনি আফগান বোর্ড।

দুই বছরের মধ্যে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার আফগানিস্তানের বিপক্ষে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া। নারীদের ক্রিকেটের প্রতি তালেবানদের অবস্থানের কারণে ২০২১ সালের নভেম্বরে হোবার্টে আফগানদের সঙ্গে একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি খেলেনি তারা।

সব মিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চারবার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। এখনও পরস্পরের সঙ্গে কোনো টেস্ট খেলেনি তারা।

আইসিসির পরবর্তী ভবিষ্যৎ সফরসূচিতে আগামী বছরের অগাস্টে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা রয়েছে দুই দলের। এরপর ২০২৬ সালের অগাস্টে এক টেস্ট ও তিন টি-টোয়েন্টি খেলতে অস্ট্রেলিয়া সফর করার কথা আফগানদের।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক