স্পিকারের সঙ্গে ক্লাইমেট পার্লামেন্ট দক্ষিণ এশিয়ার ডিরেক্টরের সৌজন্য সাক্ষাৎ

“জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় টেকসই সমাধান খুঁজতে ক্লাইমেট পার্লামেন্ট কাজ করে যাচ্ছে,” বলেন মুকুল শর্মা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Feb 2024, 06:16 AM
Updated : 9 Feb 2024, 06:16 AM

ক্লাইমেট পার্লামেন্ট দক্ষিণ এশিয়ার ডিরেক্টর মুকুল শর্মাসহ ইউএসএইড দক্ষিণ এশিয়ার প্রতিনিধিরা স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে তার কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন। 

রোববার এই সাক্ষাৎকালে তারা বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় জাতীয় সংসদ, সংসদীয় স্ট্যান্ডিং কমিটি, সংসদ সদস্য ও ক্লাইমেট পার্লামেন্টের ভূমিকাসহ দক্ষিণ এশিয়ায় ক্লাইমেট পার্লামেন্টের কাজের ধরন নিয়ে আলোচনা করেন। 

স্পিকার বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় সদ্যসমাপ্ত 'রিজিওনাল ক্লাইমেট সামিট ২০২৩' গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। ক্লাইমেট পার্লামেন্টের বিভিন্ন সামিটে জাতীয় সংসদ সদস্যদের সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে।

রিজিওনাল ক্লাইমেট সামিটে গৃহীত সব সিদ্ধান্তের অনুলিপি জাতীয় সংসদ এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর অনুরোধ করেন স্পিকার। 

ক্লাইমেট পার্লামেন্ট দক্ষিণ এশিয়ার ডিরেক্টর মুকুল শর্মা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় টেকসই সমাধান খুঁজতে ক্লাইমেট পার্লামেন্ট কাজ করে যাচ্ছে। 

ক্লাইমেট পার্লামেন্টের পলিসি ডিরেক্টর সুমেধা বসু, ইউএসএআইডি দক্ষিণ এশিয়ার জ্বালানি বিশেষজ্ঞ মোনালি হাজরা এবং রিসার্চ ট্রায়াংগেল ইন্সটিটিউটের প্রধান রাকেশ গোয়েলসহ সংশ্লিষ্টরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন বলে সংসদ সচিবালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)