ঢাবিতে ‘যৌন হয়রানি’: শিক্ষক নাদির জুনাইদকে ৩ মাসের ছুটি

তদন্তের জন্য বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরবর্তী সিন্ডিকেট সভায় উপস্থাপন করা হবে বলে চিঠিতে বলা হয়েছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Feb 2024, 01:04 PM
Updated : 12 Feb 2024, 01:04 PM

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে যৌন নির্যাতনের অভিযোগের মুখে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক নাদির জুনাইদকে তিন মাসের ছুটি দেওয়া হয়েছে।

ছুটির এ সময়ে তিনি একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না, বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্টার (প্রশাসন-১) জিএম মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিতে এমনটি বলা হয়েছে।

সোমবার বিকাল সাড়ে চারটার দিকে রেজিস্টার কার্যালয় থেকে শিক্ষক নাদির জুনাইদের ছুটির আদেশের এ চিঠি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যানের কাছে পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রবীর কুমার সরকার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, উপাচার্যের অনুমোদন সাপেক্ষে তাকে ছুটি দেওয়া হয়েছে। তবে এ বিষয়ে ওই শিক্ষকের ছুটির আবেদন ছিল এবং শিক্ষার্থীদের আবেদন ছিল। সবকিছু বিবেচনায় তাকে ছুটি দেওয়া হয়েছে।

ছুটির চিঠি বিভাগে পৌঁছার পর নিজের কার্যালয়ের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তা পড়ে শোনান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল মনসুর আহাম্মদ৷

এরপর গত দুই দিন ধরে আন্দোলনে থাকা শিক্ষার্থীরা বিভাগ ত্যাগ করেন।

ছুটির চিঠিতে বলা হয়, “বিভাগের শিক্ষার্থীদের গতকাল রোববারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জানানো যাচ্ছে যে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার স্বার্থে আপনাকে সব একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার জন্য আজ থেকে তিন মাসের জন্য ছুটি দেওয়া হল৷

“আপনার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগের যথাযথ অনুসন্ধান ও তদন্ত করার জন্য বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরবর্তী সিন্ডিকেট সভায় উপস্থাপন করা হবে এবং সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷”

নম্বর কম দেওয়া নিয়ে স্নাতকোত্তরের একটি ব্যাচের বেশ কিছু শিক্ষার্থীর অভিযোগের মধ্যে অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন বিভাগের এক নারী শিক্ষার্থী।

বিষয়টি নিয়ে গত শনিবার দুপুরে ওই শিক্ষার্থী প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। সঙ্গে কিছু অডিও রেকর্ড ও মেসেজের স্ক্রিনশটও জমা দেন তিনি।

যদিও অধ্যাপক নাদির জুনাইদ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে এর পেছনে অন্য কিছু দেখছেন। বিভাগের পরবর্তী চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার আগে ব্যক্তিগত আক্রমণের শিকার হচ্ছেন বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হয়রানির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবিতে দ্বিতীয় দিনের মতো ক্লাস বর্জন করে বিক্ষোভ করেছেন বিভাগটির শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকাল থেকে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সব ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড, পোস্টার ও ব্যানার হাতে বিভাগের বারান্দায় সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ দেখান।

একই সঙ্গে শিক্ষক নাদির জুনাইদের অফিস কক্ষে তালা দেওয়ার পাশাপাশি শ্রেণিকক্ষের তালায় সিলগালা করে দেন শিক্ষার্থীরা। কক্ষের দরজায় ‘যৌন নিপীড়ক অধ্যাপক নাদির জুনাইদকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত’ সংবলিত পোস্টারও ঝুলিয়ে দেন তারা।

এছাড়া শিক্ষার্থীরা তিন দফা দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপিও দেন। সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিলও করেন।

তাদের দাবিগুলো হল- দ্রুত তদন্ত কমিটি গঠন; দ্রুত অপরাধীকে শাস্তির আওতায় আনা; তদন্ত চলাকালে বা অভিযোগ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সকল অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম থেকে শিক্ষক নাদির জুনাইদকে বিরত রাখা।

আরও পড়ুন

Also Read: ঢাবিতে যৌন হয়রানি: শিক্ষক নাদির জুনাইদের কক্ষে তালা ঝুলিয়েছেন শিক্ষার্থীরা

Also Read: ঢাবিতে যৌন হয়রানি: বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জনের ঘোষণা

Also Read: ঢাবির সাংবাদিকতা বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ