ঢাবিতে যৌন হয়রানি: শিক্ষক নাদির জুনাইদের কক্ষে তালা ঝুলিয়েছেন শিক্ষার্থীরা

বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিন সোমবার বিভাগের শিক্ষার্থীরা সব শ্রেণিকক্ষেও তালা ঝুলিয়েছেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Feb 2024, 12:04 PM
Updated : 12 Feb 2024, 12:04 PM

শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগের মুখে থাকা অধ্যাপক নাদির জুনাইদের কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। 

তার কক্ষের দরজায় ‘যৌন নিপীড়ক অধ্যাপক নাদির জুনাইদকে ক্যাম্পাসে অবাঞ্ছিত’ লেখা পোস্টারও সাঁটানো হয়েছে। 

এই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত ও তার বিচারের দাবিতে বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিন সোমবার বিভাগের শিক্ষার্থীরা সব শ্রেণিকক্ষেও তালা ঝুলিয়েছেন।

সকাল থেকে সব ব্যাচের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড, পোস্টার ও ব্যানার হাতে বিভাগের বারান্দায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। দুপুর আড়াইটায় তারা সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। 

পরে শিক্ষার্থীরা তিন দফা দাবিতে উপাচার্যকে একটি স্মারকলিপি দেন। 

তাদের দাবিগুলো হল- নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন নিপীড়নের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে দ্রুত তদন্ত কমিটি গঠন করা; দ্রুত অপরাধারীকে শাস্তির আওতায় আনা; তদন্ত চলাকালে বা অভিযোগ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত সকল অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম থেকে শিক্ষক নাদির জুনাইদকে বিরত রাখা।

নম্বর কম দেওয়া নিয়ে স্নাতকোত্তরের একটি ব্যাচের বেশকিছু শিক্ষার্থীর অভিযোগের মধ্যে অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানি ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন বিভাগের এক শিক্ষার্থী। বিষয়টি নিয়ে শনিবার দুপুরে প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন ওই শিক্ষার্থী। সঙ্গে কিছু অডিও রেকর্ড ও মেসেজের স্ক্রিনশটও জমা দেন তিনি। 

যদিও অধ্যাপক জুনাইদ এসব অভিযোগ অস্বীকার করে এর পেছনে অন্যকিছু দেখছেন। বিভাগের পরবর্তী চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার আগে ব্যক্তিগত আক্রমণের শিকার হচ্ছেন বলে দাবি করেন তিনি। 

এদিকে  অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হয়রানির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাসে ফিরবেন না বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। 

বিভাগের ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী রাফিজ খান বলেন, “নাদির জুনাইদের নিপীড়নের বিষয়টা ডিপার্টমেন্টে ওপেন সিক্রেটের মত ছিল। এখন যেহেতু অভিযোগ এসেছে, আমরা বলেছি তাকে একাডেমিক কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দিয়ে বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত করতে। কিন্তু সেই দাবিটা এখনো মানা হচ্ছে না। তাই আমরা আন্দোলন অব্যাহত রাখছি।”

বিক্ষোভে অন্য বিভাগের শিক্ষার্থীরা 

অধ্যাপক নাদির জুনাইদের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন হয়রানির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবিতে সোমবার দুপুরে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে মানববন্ধন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের একদল শিক্ষার্থী। 

মানববন্ধনে আইন বিভাগে শিক্ষার্থী সাখাওয়াত জাকারিয়া বলেন, “শিক্ষার্থীদের অভিযোগ আমলে নিয়ে দ্রুত শাস্তি নিশ্চিতের দাবি নিয়ে আমাদের এই কর্মসূচি। কোনো শিক্ষার্থী যেন হেনস্তার শিকার না হয় সে পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।” 

ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী এবি জুবায়ের বলেন, “স্বাধীনতার বায়ান্ন বছর পরেও দেশের সর্বোচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা নিরাপদ নয়। এ ধরনের ঘটনা আজকে নতুন নয়। বিগত দিনগুলোতেও এরূপ বহু ঘটনা আমরা দেখেছি। কিন্তু সুষ্ঠু বিচার হয়না কোনো সময়ই।

Also Read: ঢাবিতে যৌন হয়রানি: বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জনের ঘোষণা

 “প্রশাসন বিচারের নামে কালক্ষেপণ করে। প্রশাসনিক ব্যবস্থার বুলি দিয়ে এবার শিক্ষার্থীদের দমিয়ে রাখা যাবে না।  এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।” 

বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী মোসাদ্দেক আলী বলেন, “নারী শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করা হচ্ছে বারবার। আজ তাদের মুখোশ উন্মোচিত হচ্ছে। যৌন নিপীড়কদের এমন শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে, যাতে পরবর্তীতে এহেন কাজ করার কেউ সাহস না পায়। অন্যথায় কঠিন থেকে কঠিন আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।”