বনানীতে সংরক্ষিত কবরে পুনরায় দাফনে লাগবে ৫০ হাজার টাকা

ডিএনসিসির অন্য পাঁচটি কবরস্থানে এই ফি হবে ৩০ হাজার টাকা।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 10 August 2022, 11:50 AM
Updated : 10 August 2022, 11:50 AM

ঢাকার বনানী কবরস্থানে কেউ কোনো কবর সংরক্ষিত রাখলে, সেখানে নিজের কাউকে পুনরায় কবর দিতে ৫০ হাজার টাকা ফি দিতে হবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন সংরক্ষিত কবরে পুনরায় কবরের এই ফি নির্ধারণ করেছে। বনানীর জন্য ৫০ হাজার টাকা হলেও ডিএনসিসির অন্য পাঁচটি কবরস্থানে এই ফি হবে ৩০ হাজার টাকা।

বনানী কবরস্থান ছাড়াও ডিএনসিসির আওতায় রয়েছে উত্তরা ৪ নম্বর সেক্টর কবরস্থান, মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থান, রায়েরবাজার বধ্যভূমি স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন কবরস্থান, উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টর কবরস্থান এবং উত্তরা ১৪ নম্বর সেক্টর কবরস্থান।

এসব কবরস্থান দেখভালের দায়িত্বে রয়েছে ডিএনসিসির সমাজ কল্যাণ ও বস্তি উন্নয়ন বিভাগ। সোমবার সে বিভাগ থেকে পুনঃকবর দেওয়ার ফি নির্ধারণ করে নোটিস জারি করা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, সিটি করপোরেশনের দ্বিতীয় পরিষদের চতুর্দশ সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কবরস্থানের উপর পুনরায় কবর করার ক্ষেত্রে ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। এই হারে ফি আদায়ের জন্য আঞ্চলিক কার্যালয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ডিএনসিসির প্রধান সমাজ কল্যাণ ও বস্তি উন্নয়ন কর্মকর্তা মোহাম্মদ মামুন-উল-হাসান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সিটি করপোরেশনের কবরস্থানে ১৫ বছর এবং ২৫ বছর মেয়াদে কবর সংরক্ষণ করা যায়।

কবর সংরক্ষণের জন্য বড় অঙ্কের অর্থ গুণতে হয়। এতদিন কোনো পরিবারের কবর সংরক্ষিত থাকলে পরিবারের অন্যদেরও সেখানে কবর দেওয়া হচ্ছিল, যাতে বাড়তি অর্থ গুণতে হত না। এখন তা গুণতে হবে।

মামুন বলেন, “যে ব্যক্তির কবর সংরক্ষণ করা হয়েছে, তার কোনো নিকটাত্মীয় মারা গেলে তাকেও সেখানে কবর দিতে পারবেন। সেক্ষেত্রে এই ফি কার্যকর হবে। তবে প্রথম ব্যক্তিকে কবর দেওয়ার তিন বছর সেখানে পুনরায় কবর দেওয়া যাবে।”

সিটি করপোরেশনের কবরস্থানে সাধারণ কবরের জন্য ৫০০ টাকা ফি দিতে হয়। এই কবর সংরক্ষিত থাকে দুই বছর। দুই বছর পর সেখানে নতুন করে কাউকে কবর দেওয়া হয়। সাধারণ কবরস্থানে কবর দিতে হলে ৫০০ টাকা ফির বাইরে কোনো টাকা দিতে হয় না।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক