ব্রুনেই সুলতান আসছেন শনিবার, যা থাকছে আলোচনায়

তিনটি দ্বিপক্ষীয় চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনার কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Oct 2022, 03:30 PM
Updated : 14 Oct 2022, 03:30 PM

তিন দিনের সফরে ঢাকায় আসছেন ব্রুনেই দারুসসালামের সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ।

শনিবার বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানাবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এদিন বেলা ১২টার দিকে বিশেষ বিমানে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে তার বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে প্রথমবারের মত এ সফরে ঢাকায় আসছেন বলকিয়াহ; যিনি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ব্রুনেইয়ের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বেও রয়েছেন।

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর তিনিই এখন বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সময় ধরে কোনো দেশের সিংহাসনে থাকা শাসক।

বিলাসী জীবনযাপনের জন্য আলোচনায় থাকা এ সুলতানের সফরকালে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি তিনটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার সম্ভাবনার কথা এর আগে জানিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

দুই দেশের মধ্যে সরাসরি বিমান যোগাযোগ চালু ও বাংলাদেশি জনশক্তি নেওয়াসহ তিনটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সইয়ের সম্ভাবনার কথা এর আগে বলেছিলেন তিনি।

দুদেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেছিলেন, “বিশেষত বিগত এক দশকে ব্রুনেইয়ের সাথে বাণিজ্য, বিনিয়োগ, জ্বালানি, কৃষি, মানবসম্পদ উন্নয়নসহ নানাবিধ ক্ষেত্রে সহযোগিতা সম্প্রসারিত হচ্ছে।”

ঢাকায় সুলতানের সফর হবে বাংলাদেশে ব্রুনেইয়ের রাষ্ট্রপ্রধান পর্যায়ের প্রথম সফর। ২০২০ সালের এপ্রিলে সফরটি চূড়ান্ত করা হলেও করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে শেষ মূহুর্তে তা স্থগিত হয়।

এরআগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, সুলতান বলকিয়াহকে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনায় ২১ বার তপোধ্বনিসহ গার্ড অব অনার প্রদান করা হবে।

বিমানবন্দর থেকে সাভারে গিয়ে জাতীয় স্মৃতিসৌধে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবেন। এরপর ধানমণ্ডিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করবেন।

সফরের প্রথমদিন রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন ব্রুনেইয়ের সুলতান। পরে তার সম্মানে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রাষ্ট্রীয় নৈশভোজে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি।

সফরের দ্বিতীয় দিন রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন বলকিয়াহ।

ব্রুনেই ১৯৮৪ সালে ব্রিটেনের উপনিবেশ থেকে স্বাধীনতা লাভের পরপরই দুদেশের (বাংলাদেশ-ব্রুনেই) মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়। এরপর ১৯৯৭ সালে ব্রুনেইয়ে বাংলাদেশের কূটনৈতিক মিশন পুনঃস্থাপন করা হয়।

সুলতানের সঙ্গে প্রতিনিধিদলে রাজপরিবারের সদস্য, দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্যান্য মন্ত্রী এবং উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা আসবেন।

এর আগে সুলতানের আমন্ত্রণে ২০১৯ সালের এপ্রিলে ব্রুনেই সফর করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই সময় উভয় দেশের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর আলোচনার পাশাপাশি ছয়টি সমঝোতা স্মারক হয়েছিল।

এবারের সফরে চুক্তি ও এমওইউ ছাড়াও ব্রুনেই থেকে জ্বালানি আমদানির বিষয়ে সমঝোতা হওয়ার কথা থাকলেও তা হচ্ছে না বলেই ইঙ্গিত মিলেছে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কথায়। তবে এই বিষয়ে আলোচনায় বেশ অগ্রগতি হয়েছে বলে জানান তিনি।

ব্রুনেইয়ে খাদ্যশস্য আমদানির সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে সরাসরি বিমান যোগাযোগ সেক্ষেত্রে সহায়ক হবে বলে মনে করেন তিনি।

“ব্রুনেই সব খাদ্যশস্য বিদেশ থেকে আমদানি করে। খাদ্য নিরাপত্তার ব্যাপারে তারা আমাদের সাথে কাজ করতে চায়। আমরা এদিক থেকে মোটামুটিভাবে ভালো অবস্থায় আছি।

“আমরা পৃথিবীর প্রথমসারির ধান, মাছ ও সবজি উৎপাদনকারী দেশ। আমরা সরাসরি ফ্লাইটটা চালু করলে আমাদের ব্যবসা অনেক বাড়বে।”

বাংলাদেশে চুক্তিবদ্ধ কৃষির মাধ্যমে খাদ্যশস্য রপ্তানির সুযোগ তৈরির বিষয়েও দুদেশের মধ্যে আলোচনা চলার কথা উল্লেখ করেন মোমেন।

ব্রুনেইয়ের প্রধানমন্ত্রী সুলতান বলকিয়াহ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রাসাদের বাসিন্দা, ৭ হাজার বিলাসবহুল গাড়ি ও স্বর্ণখচিত উড়োজাহাজের মালিক বলকিয়াহ বিশ্বজুড়ে আলোচিত তার বিলাসী যাপনের জন্য।

বাবা ওমর আলী সাইফুদ্দিন সাদুল খাইরি ওয়াদ্দিন স্বেচ্ছায় ক্ষমতা ছাড়ার পর বলকিয়াহ সুলতান হন। ১৯৬৭ সালে হাসানাল বলকিয়াহকে দেশটির ২৯তম সুলতান হিসাবে দায়িত্ব নেন তিনি।

ক্ষমতা গ্রহণের এক দশক পর ১৯৭৮ সালে উপনিবেশ থেকে স্বাধীন হতে ব্রিটেনের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেন বলকিয়াহ। এর ধারাবাহিকতায় ১৯৮৪ সালের জানুয়ারিতে স্বাধীনতা পায় দেশটি।

তেল সমৃদ্ধ দেশ ব্রুনেইয়ের এই শাসক এক সময় ফোর্বস ম্যাগাজিনের করা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির তালিকাতেও ছিলেন। ২০১১ সালে ফোর্বসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, সুলতান বলকিয়াহ আনুমানিক ২ হাজার কোটি ডলারের মালিক।

নিজের শাসনকে ছাপিয়ে বিলাসবহুল ও জাঁকজমকপূর্ণ জীবনযাপনের জন্যই পরিচিতি পান সুলতান হাসানাল বলকিয়াহ। 

পুরনো খবর

Also Read: সুলতান বলকিয়াহর শান শওকত

Also Read: সুলতান বলকিয়াহর পছন্দ ‘ব্ল্যাক বেঙ্গলের মাংস’

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক