হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট পিনেরার মৃত্যু

মধ্যডানপন্থি এ রাজনৈতিক নেতার মৃত্যুতে চিলিজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। লাতিন আমেরিকার নেতারাও শোক জানাচ্ছেন।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2024, 04:47 AM
Updated : 7 Feb 2024, 04:47 AM

চিলির সাবেক প্রেসিডেন্ট সেবাস্তিয়ান পিনেরা হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। তিনি দুই মেয়াদে দেশটির প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

মঙ্গলবার চিলির দক্ষিণাঞ্চলে পিনেরাকে (৭৪) বহনকারী হেলিকপ্টারটি একটি হ্রদে পড়ে ডুবে যায়। এ সময় তার সঙ্গে আরও তিনজন ছিলেন। কিছুক্ষণ পর উদ্ধারকারীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাবেক প্রেসিডেন্টকে মৃত ঘোষণা করেন। অপর তিনজন জীবিত আছেন।

দু’টি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছে, পিনেরা নিজেই হেলিকপ্টারটি চালাচ্ছিলেন; কিন্তু চিলির কর্মকর্তারা তা নিশ্চিত করেননি, হেলিকপ্টারটির গন্তব্য কোথায় ছিল তাও জানাননি তারা। 

প্রায়ই চিলির দক্ষিণাঞ্চলের মনোরম হ্রদ এলাকাগুলোতে গ্রীষ্মকালগুলো কাটাতেন পিনেরা। অধিকাংশ সময় নিজের মালিকানাধীন হেলিকপ্টার নিজেই চালাতেন।

মধ্যডানপন্থি এ রাজনৈতিক নেতার মৃত্যুতে চিলিজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। লাতিন আমেরিকার নেতারাও শোক জানাচ্ছেন।

চিলির প্রেসিডেন্ট গ্যাব্রিয়েল বোরিক তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছেন। শুক্রবার রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার মাধ্যমে পিনেরাকে বিদায় জানানোর প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। পিনেরা ২০১০ থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে চিলির প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

চিলির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্যারোলিনা তোহা জানিয়েছেন, লাগো র‌্যানকো শহরের নিকটবর্তী ওই হ্রদ থেকে সাবেক প্রেসিডেন্টের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।  

‍‍‍‍‌‌‌‌‌‌"জনগণের সেবায় তিনি যেভাবে নিজের জীবনকে নিবেদিত করেছিলেন তার জন্য আমরা তাকে স্মরণ করি,” বলেছেন তোহা, যিনি চিলির প্রাণঘাতী দাবানলের বিরুদ্ধে চলমান লড়াইয়ের উদ্যোগগুলোতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

২০১০ সালে চিলির আতাকামা মরুভূমির একটি খনিতে ৩৩ জন শ্রমিক আটকা পড়েছিলেন। পিনেরা বিদেশে সবচেয়ে বেশি পরিচিতি পেয়েছিলেন এই শ্রমিকদের উদ্ধার অভিযান তত্ত্বাবধান করে পালন করা ভূমিকার জন্য। খনিতে আটকা পড়া শ্রমিকদের উদ্ধারের এই ঘটনা বিশ্বজুড়ে গণমাধ্যমগুলোতে ব্যাপক প্রচার পেয়েছিল আর ২০১৪ সালে এ ঘটনা অবলম্বনে "দ্য থার্টিথ্রি"‌‌ নামের একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করা হয়েছিল।

খ্যাতিমান মধ্যপন্থি এক রাজনৈতিক নেতার ছেলে পিনেরা হার্ভার্ড থেকে পাস করা অর্থনীতিবিদ ছিলেন। পরে তিনি একজন সফল ব্যবসায়ীতে পরিণত হন। ১৯৮০-র দশকে তিনি চিলিতে প্রথম ক্রেডিট কার্ড চালু করেন।  

২০২৪ সালে ২ দশমিক ৭ বিলিয়ন ডলার সম্পদ নিয়ে তিনি ফোবর্সের বিশ্ব ধনীদের তালিকায় ১১৭৬তম স্থানে ছিলেন। পিনেরা ও তার স্ত্রী সিসিলিয়া মোরেল চার সন্তানের জনক-জননী।

আরও পড়ুন:

Also Read: চিলিতে দাবানলে ১১২ জনের মৃত্যু