গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত বহু

গাজা সিটির প্রধান হাসপাতাল আল শিফার আশপাশে ইসরায়েলি সেনা ও হামাস যোদ্ধাদের মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে। 

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2024, 04:08 AM
Updated : 30 March 2024, 04:08 AM

ফিলিস্তিনের ছিটমহল গাজায় বিমান হামলা ও গোলাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েল, শুক্রবারও তারা ভূখণ্ডটিতে কয়েক ডজন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে।

ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা ও ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, গাজা সিটির প্রধান হাসপাতাল আল শিফার আশপাশে ইসরায়েলি সেনা ও হামাস যোদ্ধাদের মধ্যে তুমুল লড়াই চলছে। 

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানান, গাজার সিটির আল-শেজাইয়া এলাকায় ইসরায়েলের দু’টি হামলায় ১৭ জন নিহত হয়েছে আর গাজা ভূখণ্ডের মধ্যবর্তী এলাকা আল মাগাজি শরণার্থী শিবিরের একটি বাড়িতে ইসরায়েলি বিমান হামলায় আরও আটজন নিহত হয়েছে।

হামাস শাসিত গাজার তথ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আল-শেজাইয়ায় নিহতদের মধ্যে অন্তত ১০ জন পুলিশ সদস্য আছেন, তারা উত্তর গাজার বাস্তুচ্যুতদের জন্য পাঠানো ত্রাণের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন।

ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, তাদের বাহিনীগুলো আল শিফা কমপ্লেক্সের আশপাশে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে, তবে ‘বেসামরিক, রোগী, মেডিকেল টিম ও চিকিৎসা যন্ত্রপাতির ক্ষতি কমানোর’ দিকে নজর রাখছে। শুক্রবার দিনভর সেখানে তারা বহু বন্দুকধারীকে হত্যা করেছে এবং অস্ত্র ও সামরিক অবকাঠামো খুঁজে পেয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, যুদ্ধ শুরুর আগে আল শিফা ছিল গাজা ভূখণ্ডের সবচেয়ে বড় হাসপাতাল। সর্বশেষ এই লড়াই শুরু হওয়ার আগ পর্যন্ত হাসপাতালটিতে আংশিক হলেও কার্যক্রম চলমান ছিল। গাজায় যে অল্প কয়েকটি হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম কোনোরকমে টিকে ছিল এটি তাদের অন্যতম। এখানে বহু বাস্তুচ্যুত ফিলিস্তিনিও আশ্রয় নিয়ে আছে।

ইসরায়েলের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, তাদের বাহিনীগুলো খান ইউনিস ও আল-কারারাসহ গাজার মধ্যাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলে অভিযান চালাচ্ছে, এসব এলাকায় ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীদের সঙ্গে গোলাগুলি হওয়ার পর ইসরায়েলি সেনারা তাদের সবাইকে হত্যা করেছে আর অস্ত্রশস্ত্র ও রকেট উদ্ধার করেছে। 

ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাসাম ব্রিগেড জানিয়েছে, তাদের যোদ্ধারা খান ইউনিসের নাসের হাসপাতালের কাছে ইসরায়েলি বাহিনীর ওপর হামলা চালিয়েছে।

কয়েকদিন ধরে ইসরায়েলি সেনারা খান ‍ইউনিসের যে দু’টি হাসপাতাল অবরোধ করে রেখেছে নাসের হাসপাতাল তার একটি। 

গাজার দক্ষিণাংশে মিশরের সীমান্তবর্তী শহর রাফার একটি বাড়িতে বৃহস্পতিবার রাতে ইসরায়েলি বিমান হামলায় ১২ ফিলিস্তিনি নিহত হয়। গাজার ২৩ লাখ বাসিন্দার অর্ধেকেরও বেশি ঘরবাড়ি হারিয়ে এই রাফায় এসে আশ্রয় নিয়ে আছে। কিন্তু এখানেও অবিরাম বোমা হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় গাজায় ইসরায়েলি হামলায় মোট ৭১ জন নিহত হয়েছে।

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে গাজা ভূখণ্ডে হামলা শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী। তারপর থেকে তাদের বিরতিহীন হামলায় ঘনবসতিপূর্ণ ছোট্ট এই ছিটমহলটিতে ৩২ হাজারেরও বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।

আরও পড়ুন:

Also Read: গাজায় ত্রাণ প্রবেশের অনুমতি দিতে ইসরায়েলকে নির্দেশ আন্তর্জাতিক আদালতের

Also Read: সিরিয়ায় ইসরায়েলি হামলায় ‘নিহত ৩৮’

Also Read: ফিলিস্তিনি শনাক্তে গুগল ফটোস ব্যবহার করেছিল ইসরায়েল?