কানাডায় শিখ নেতা হত্যায় ভারত জড়িত, বিস্ফোরক অভিযোগ ট্রুডোর

“কানাডার মাটিতে কানাডার একজন নাগরিককে হত্যায় ভিনদেশি একটি সরকারের জড়িত থাকা আমাদের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন,” বলেন তিনি।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Jan 2024, 07:07 AM
Updated : 24 Jan 2024, 07:07 AM

কানাডায় তিন মাস আগে শিখ নেতা হারদীপ সিং নিজ্জারকে হত্যার পেছনে ভারত সরকারের হাত আছে বলে অভিযোগ করেছেন খোদ কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

গত ১৮ জুন ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় একটি শিখ মন্দিরের সামনে হারদীপ সিং নিজ্জারকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ট্রুডো বলছেন, কানাডার গোয়েন্দারা ওই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে ভারত সরকারের যোগাযোগ থাকার ‘বিশ্বাসযোগ্য’ তথ্য পেয়েছে। 

সোমবার দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে দেওয়া এক জরুরি বিবৃতিতে ট্রুডো বলেন, “কানাডার মাটিতে কানাডার একজন নাগরিককে হত্যায় ভিনদেশি একটি সরকারের জড়িত থাকা আমাদের সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন।”

ভারত কানাডার এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে একে ‘অন্তঃসারশূন্য’ আখ্যায়িত করেছে। সম্প্রতি নয়া দিল্লিতে জি২০ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকের সময়ও বিষয়টি তুলেছিলেন ট্রুডো। ভারত এর আগেও নিজ্জারের খুনের সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পৃক্ততার কথা অস্বীকার করেছিল।

মঙ্গলবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। সেখানে বলা হয়, কানাডায় কোনো সহিংসতার ঘটনায় ভারত সরকারের জড়িত থাকার অভিযোগ ‘অন্তঃসারশূন্য এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’। এর আগেও কানাডার প্রধানমন্ত্রী ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছে একই ধরনের অভিযোগ করেছিলেন এবং তা ‘পুরোপুরি প্রত্যাখ্যান’ করা হয়েছিল। 

ওই বিবৃতিতে উল্টো কানাডার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে ভারত। সেখানে বলা হয়েছে, কানাডা দীর্ঘদিন ধরে খালিস্থানি চরমপন্থি ও সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দিয়ে আসছে, যা ভারতের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি।

এদিকে নিজ্জার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ভারতের কূটনীতিক পবন কুমার রাইকে বহিষ্কার করেছে কানাডা। পার্লামেন্টে ট্রুডোর বক্তব্যের পর দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেলানিয়া জোলি সাংবাদিকদের এ কথা জানান। বহিষ্কৃত ওই কূটনীতিক ভারতের গোয়েন্দা সংস্থার রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালাইসিস উইংয়ের (আরএডব্লিউ) স্থানীয় প্রধান বলে জানিয়েছেন জোলি।

এর পাল্টায় মঙ্গলবার কানাডার রাষ্ট্রদূত ক্যামেরন ম্যাককেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করে ভারত। পাশাপাশি কানাডার এক জ্যেষ্ঠ কূটনীতিককে বহিষ্কার করে পাঁচ দিনের মধ্যে দেশ ছাড়ার নোটিস দিয়েছে নয়া দিল্লি। বহিষ্কৃত ওই কূটনীতিকের নাম প্রকাশ করেনি তারা।

কানাডার তদন্তকারীরা শিখ নেতা নিজ্জারের (৪৫) মৃত্যুকে ‘টার্গেট কিলিং’ হিসেবে চিহ্নিত করেছিল। ঘটনার দিন দুপুরে ভ্যাঙ্কুভার থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার পূর্বে সারি শহরে গুরু নানক শিখ গুরুদুয়ারার ব্যস্ত কার পার্কে মুখোশ পরা দুই বন্দুকধারী নিজ্জারকে তার গাড়িতে গুলি করে হত্যা করে।  

সংবাদ সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স, এনডিটিভি

(প্রতিবেদনটি প্রথম ফেইসবুকে প্রকাশিত হয়েছিল ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক)