ডুবোযানে কলম্বিয়া থেকে ৮০০ কেজি কোকেন যাচ্ছিল যুক্তরাষ্ট্র-ইউরোপে

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি কোকেন উৎপাদন হয় কলম্বিয়ায়; বিভিন্ন উপায়ে এসব কোকেন চোরাচালান হলেও সাগরপথে ডুবোযানে পাচার বেশি জনপ্রিয়।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Jan 2024, 08:53 AM
Updated : 23 Jan 2024, 08:53 AM

দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ার সাগরে একটি ‘সেমি সাবমার্সিবল’ বা আধা-ডুবোযান থেকে ৮০০ কেজি কোকেন জব্দ করেছে দেশটির নৌবাহিনী।

দেশটির প্রশান্ত মহাসাগরীয় জলসীমায় রোববার মাদকের এ বিশাল চালান ধরা পড়ে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

নতুন বছরে এই প্রথম মাদকের এত বড় চালন জব্দ করল দেশটি। কর্তৃপক্ষ বলছে, ৫০ ফুট লম্বা ডুবোযানটিতে বিচ্ছু প্রতীকের স্ট্যাম্প লাগিয়ে পার্সেল আকারে সেগুলো নেওয়া হচ্ছিল আমেরিকা কিংবা ইউরোপে। এগুলোর আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

ডুবোজাহাজটিতে থাকা তিনজনকে আটকের কথা জানিয়ে নৌবাহিনী বলেছে, জাহাজে কোকেন হাইড্রোক্লোরাইডের প্যাকেজ ছিল। মাদক ও আটক ব্যক্তিদের কলম্বিয়ার বন্দর শহর বুয়েনাভেন্তুরাতে নেওয়া হয়েছে।

কলম্বিয়া বিশ্বের বৃহত্তম কোকেন উৎপাদনকারী দেশ। বিবিসি জানায়, এসব কোকেন বিভিন্ন উপায়ে চোরাচালান হলেও ডুবোযানে পাচার বেশি জনপ্রিয়। কারণ, বেশিরভাগ সময় জলযানগুলোকে শনাক্ত করা যায় না। আর পাচারের পর সেগুলো পানির নিচে ডুবে থাকতে পারে। বাহনগুলো ফাইবার গ্লাস ও প্লাইউড ব্যবহার করে কলম্বিয়াতেই তৈরি হয়।

২০২৩ সালে পাঁচ টনেরও বেশি গাঁজাসহ ৩০ টন মাদক জব্দ করে কলম্বিয়ার নৌবাহিনী। ওই বছরের মে মাসে কলম্বিয়ার ইতিহাসে রেকর্ড তিন টন কোকেন জব্দ করা হয়েছিল। সেগুলোও দেশীয় ডুবোযানে পাচার করা হচ্ছিল, যেটি লম্বায় ১০০ ফুট এবং চওাড়ায় ছিল ১০ ফুট।