থেমে গেল মঙ্গলআকাশে ওড়া একমাত্র কপ্টারের উড্ডয়ন

ঘটনাটি ঘটেছে হেলিকপ্টারের ৭২তম উড্ডয়নের সময়, যখন মঙ্গলপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ৪০ ফিট ওপরে অবস্থান করছিল যানটি।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Jan 2024, 08:10 AM
Updated : 21 Jan 2024, 08:10 AM

পৃথিবীর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে মঙ্গল গ্রহে বিভিন্ন পরীক্ষা চালানো নাসার ‘ইনজেনুইটি’ হেলিকপ্টারের।

এ সপ্তাহে শুরুর দিকে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলার পর থেকেই মহাকাশযানটির খোঁজ চালাচ্ছে নাসা।

ঘটনাটি ঘটেছে হেলিকপ্টারের ৭২তম উড্ডয়নের সময়, যখন মঙ্গলপৃষ্ঠ থেকে মাত্র ৪০ ফিট ওপরে অবস্থান করছিল যানটি। নাসা বলছে, উড্ডয়ন শেষ হওয়ার আগেই মঙ্গলের পৃষ্ঠে অবস্থান করা ‘পার্সিভ্যারেন্স’ রোভারের সঙ্গে যোগাযোগ হারিয়ে ফেলে কপ্টারটি।

শুক্রবার বিকেল পর্যন্ত হেলিকপ্টারটির সঙ্গে নাসার যোগাযোগ পুনঃস্থাপন করা সম্ভব হয়নি বলে উঠে এসেছে প্রযুক্তি সাইট এনগ্যাজেটের প্রতিবেদনে।

নাসার সঙ্গে ইনজেনুইটি’র যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে কাজ করে পার্সিভ্যারেন্স রোভার। ইনজেনুইটি তথ্য পাঠায় পার্সিভ্যারেন্সে, এরপর সে তথ্য পৌঁছায় নাসার কাছে। নাসার পাঠানো তথ্যও একইভাবে যায় ইনজেনুইটির কাছে।

নাসার তথ্য অনুসারে, হেলিকপ্টারটি পরিকল্পনা মতো ওপরে উঠতে পারলেও নেমে আসার সময় যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

“ইনজেনুইটি’র দল তাদের হাতে থাকা বিভিন্ন তথ্য বিশ্লেষণের পাশাপাশি এর সঙ্গে আবারও যোগাযোগ প্রতিষ্ঠার সম্ভাব্য পদক্ষেপগুলোও বিবেচনা করছে।” –শুক্রবার দেওয়া আপডেটে বলেছে নাসা। 

এর আগে নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ার আগেই একটি উড্ডয়ন সম্পূর্ণ করেছিল ইনজেনুইটি। বৃহস্পতিবারের যাত্রাটি কেবল ‘হেলিকপ্টারের সিস্টেম পরীক্ষা’র জন্য চালানো হয়েছিল বলে প্রতিবেদনে লিখেছে এনগ্যাজেট।

২০২১ সাল থেকেই মঙ্গল গ্রহে অবস্থান করছে ইনজেনুইটি। পার্সিভ্যারেন্স রোভারের সঙ্গে পাঠানো নভোযানটি এরইমধ্যে নিজের প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে।

প্রাথমিকভাবে নাসার প্রত্যাশা ছিল, পরীক্ষামূলক হেলিকপ্টারটি হাতে গোনা কয়েকবারই উড্ডয়ন শেষ করতে পারবে। তবে, এর শুরুর বছরেই মঙ্গলের আকাশে ২০ বারের বেশি সফল উড্ডয়ন চালানোর লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করে মহাকাশযানটি।

২০২২ সালে নাসা মিশনের সময়সীমা বাড়ানোর পর আরও ডজনখানেক ফ্লাইট সফলভাবে শেষ করেছে এটি। আর ইনজেনুইটিই প্রথম মহাকাশযান, যেটি মঙ্গলপৃষ্ঠ থেকে আকাশে উড়েছে।