গুগল ক্লাউডের ‘দরজা বন্ধ’, চড়াও ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা

“অপেক্ষা করুন আপনার ডেটা শীঘ্রই ফিরে আসবে’ ব্যবহারকারীকে এমন বক্তব্য না দিয়ে বরং গুগলকে এ বিষয়টিও জানাতে হবে যে, ওই ডেটা কোথায় ছিল।”

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2023, 09:07 AM
Updated : 29 Nov 2023, 09:07 AM

গুগল ড্রাইভের মধ্যে থাকা গত ছয় মাসের বিভিন্ন ফাইলে প্রবেশ করতে না পারায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন ব্যবহারকারীদের একটি অংশ।

গুগল বলেছে, নিজেদের জনপ্রিয় ক্লাউড সেবার কিছু গ্রাহক এতে কেন প্রবেশ করতে পারছেন না, সে বিষয়টি তারা তদন্ত করছে।

২২ নভেম্বর বিষয়টি নিয়ে প্রথম অভিযোগ জানিয়ে এক ব্যবহারকারী বলেন, তার গুগল ড্রাইভ ২০২৩ সালের মে মাসের সংস্করণে রিসেট হয়ে গেছে।

এ ঘটনায় আক্রান্ত গ্রাহকের সঠিক সংখ্যা জানা না গেলেও এমন অভিযোগ জানিয়েছেন একাধিক দেশের ব্যবহারকারীরা।

ড্রাইভ হল গুগল ওয়ার্কস্পেসের একটি অংশ, যার বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন গোটা বিশ্বের তিনশ কোটির বেশি ব্যবহারকারী ব্যবহার করে থাকেন।

গুগলের ‘সাপোর্ট’ সাইটে এর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ব্যবহারকারীরা। এর মধ্যে একজন ব্যবহারকারী একে ‘খুবই হতাশাজনক’ বলেও আখ্যা দেন। তিনি আরও বলেন, “এর মধ্যে থাকা ফাইলগুলো আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

অন্যরা বলছেন, তারা সাম্প্রতিক মাসগুলোয় তৈরি করা বিভিন্ন ফাইল হারিয়ে ফেলেছেন। তারা আরও লেখেন, এটি তাদের শঙ্কার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

“এটা খুবই অদ্ভুত বিষয়। আর ক্লাউড সেবাটিও নির্ভরযোগ্য নয়।” --মন্তব্য করেন এক ব্যবহারকারী।

“এ নিয়ে আমরা আতঙ্কের মধ্যে আছি।”

আরেক ব্যবহারকারী পোস্ট করেন, “আমি প্রতি মাসে ক্লাউড সেবায় আর্থিক ফি দেই। দরকার হলে এজন্য আমি আইনি পদক্ষেপও নেব। এটা একইসঙ্গে অগ্রহণযোগ্য ও খুবই বিরক্তিকর বিষয়।”

আরও আপডেট

উইন্ডোজের ডেস্কটপ সংস্করণে ড্রাইভ ব্যবহার করা মূল পোস্টদাতা বলছেন, এখন পর্যন্ত গুগল যেসব আপডেট এনেছে, সেগুলোর একটিও কাজ করেনি।

নিজস্ব ফোরামে দেওয়া এক পোস্টে গুগল বলেছে, তারা এ অভিযোগ নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে। আর এতে আরও আপডেট ‘শীগগীরই আসবে’।

গুগল আরও বলেছে, ব্যবহারকারীরা যেন ডেস্কটপ অ্যাপে নিজেদের অ্যাকাউন্টের সংযোগ বিচ্ছিন্ন না করেন। এমনকি অ্যাপ ডেটা ফোল্ডারও যেন না সরান বা মুছে ফেলেন।

এর পাশাপাশি, ওইসব ফোল্ডার কপি করে রাখার পরামর্শও দিয়েছে গুগল।

আইটি কোম্পানি ‘ফরেস্টার’-এর ডেটা প্রাইভেসি বিশেষজ্ঞ এনজা লানোপলো বলেন, এটি গুগলের জন্য “খুবই উদ্বেগজনক’ পরিস্থিতি।

তিনি আরও বলেন, ব্যবহারকারীদের এ বিষয় নিয়ে বিস্তারিত জানানো গুগলের জন্য ‘অত্যন্ত জরুরী’।

“অপেক্ষা করুন আপনার ডেটা শীঘ্রই ফিরে আসবে’ ব্যবহারকারীকে এমন বক্তব্য না দিয়ে বরং গুগলকে এ বিষয়টিও জানাতে হবে যে, ওই ডেটা কোথায় ছিল।” --বিবিসিকে বলেন লানোপলো।

তিনি আরও বলেন, ফাইলগুলোতে প্রবেশ করা হয়েছে বা এতে পরিবর্তন আনা হয়েছে কি না, এমন তথ্য ব্যবসায়িক গ্রাহকদের বিশেষভাবে জানানো অত্যন্ত জরুরী। কারণ, কোনো ডেটা হারিয়ে গেলে এর দায়ভার গুগল নয় বরং তাদেরই নিতে হবে।

এ প্রসঙ্গে গুগলের মন্তব্য জানতে যোগাযোগ করেছিল বিবিসি।