যুক্তরাষ্ট্রের ‘স্পাই স্যাটেলাইট’ বহনের ছাড়পত্র পেল স্পেসএক্স

বিভিন্ন গোপন ‘স্পাই স্যাটেলাইট’ অভিযানে স্পেসএক্স-এর পুনঃব্যবহারযোগ্য বুস্টারে সজ্জিত ‘ফ্যালকন হেভি’ রকেটের ব্যবহার প্রত্যায়ন করেছে দেশটির ‘স্পেস ফোর্স’।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 August 2022, 01:18 PM
Updated : 13 August 2022, 01:18 PM

শীঘ্রই মার্কিন সরকারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ স্যাটেলাইট অভিযানগুলো সম্পন্ন হতে পারে স্পেসএক্স-এর রকেটে।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদন বলছে, বিভিন্ন গোপন ‘স্পাই স্যাটেলাইট’ অভিযানে স্পেসএক্স-এর পুনরায় ব্যবহারযোগ্য বুস্টারে সজ্জিত ‘ফ্যালকন হেভি’ রকেটের ব্যবহার প্রত্যায়ন করেছে দেশটির ‘স্পেস ফোর্স’।

এই অর্জনের ফলে আগের তুলনায় আরও বেশি সরকারি ‘হাই-প্রোফাইল’ অভিযান পরিচালনা করতে পারবে স্পেসএক্স। পাশাপাশি, কক্ষপথে এই সব স্যাটেলাইট পাঠানোর খরচ কমিয়ে সরকারী অর্থ বাঁচানোর কথা দিয়েছে ইলন মাস্কের প্রতিষ্ঠিত কোম্পানিটি।

“ফ্যালকন ৯’ রকেট ব্যবহার করে বিভিন্ন ‘জিপিএস’ অভিযান থেকে এরইমধ্যে প্রায় ছয় কোটি ৪০ লাখ ডলার বাঁচিয়েছে স্পেস ফোর্স।” --বলেছেন ‘স্পেস সিস্টেমস কমান্ড’-এর প্রধান ওয়াল্টার লডারডেল।

প্রত্যয়নের প্রক্রিয়া জুন মাসে শুরু করলেও অনুমোদনে সময় নিয়েছে স্পেস ফোর্স, কারণ ‘ফ্যালকন ৯’ রকেটে করে স্পাই স্যাটেলাইট বহন করতে পারলেও তুলনামূলক ভারি ‘পেলোড’ বহনের সক্ষমতা সব সময় থাকে না তাদের।

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট এনগ্যাজেটের প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রথম ফ্যালকন হেভি-ভিত্তিক উৎক্ষেপণটি হতে পারে অক্টোবর ও ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি, যখন ‘ন্যাশনাল রিকনেসান্স অফিসে’র একটি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করবে স্পেসএক্স।

এই পদক্ষেপ ক্ষণস্থায়ী হলেও বড় একটি ধাক্কা হয়ে দেখা দেবে প্রতিদ্বন্দ্বী রকেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য। বোয়িং ও লকহিড-মার্টিনের যৌথ উদ্যোগ ‘ইউনাইটেড লঞ্চ অ্যালায়ান্স (ইউএলএ)’ নিজেদের ‘ভালকান’ রকেটের একটি সংস্করণের অনুমোদন এখনও পায়নি, যেখানে ব্যবহৃত হয়েছে ‘ব্লু অরিজিনের মোটর’।

২০২৫ থেকে ২০২৭ অর্থবছরের জন্য নির্ধারিত ৩৯টি জাতীয় সুরক্ষা উৎক্ষেপণ পদ্ধতির পর্যালোচনা করছেন দেশটির বিমান বাহিনীর কর্মকর্তারা। ব্যবসায়িক এই লড়াইয়ে স্পেসএক্স-এর পরেই তালিকায় রয়েছে ইউএলএ।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক