অ্যান্টিট্রাস্ট তদন্ত এড়াতে অফিস থেকে টিমস সরাচ্ছে মাইক্রোসফট

প্রতিদ্বন্দ্বী সফটওয়্যার কোম্পানি সেলসফোর্স মালিকানাধীন মেসেজিং অ্যাপ ‘স্ল্যাক’-এর দায়ের করা এক অভিযোগের পর থেকেই অফিস ও টিমস নিয়ে তদন্ত করছে ইউরোপীয় কমিশন।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 April 2024, 11:08 AM
Updated : 1 April 2024, 11:08 AM

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সম্ভাব্য অ্যান্টিট্রাস্ট জরিমানা এড়াতে নিজেদের চ্যাটিং ও ভিডিও অ্যাপ ‘টিমস’কে ‘অফিস’ সফটওয়্যার পণ্য থেকে আলাদা করার পর এবার বৈশ্বিকভাবেই এ পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছে মাইক্রোসফট।

সোমবারের এ ঘোষণার ছয় মাস আগে ইউরোপে পণ্য দুটি আলাদাভাবে বিক্রি শুরু করেছিল মার্কিন এ টেক জায়ান্ট কোম্পানিটি।

২০২০ সালে মাইক্রোসফটের প্রতিদ্বন্দ্বী সফটওয়্যার কোম্পানি সেলসফোর্স মালিকানাধীন মেসেজিং অ্যাপ ‘স্ল্যাক’-এর দায়ের করা এক অভিযোগের পর থেকেই অফিস ও টিমস নিয়ে তদন্ত করছে ইউরোপীয় কমিশন।

২০১৭ সালে ‘অফিস ৩৬৫’-এ বিনামূল্যে টিমস যোগ করেছিল মাইক্রোসফট, যেখানে কোম্পানিটির আরেক সফটওয়্যার ‘স্কাইপ ফর বিজনেস’-এর জায়গা নিয়েছিল এটি। আর করোনা মহামারীর সময় ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল সফটওয়্যারটি।

তবে প্রতিদ্বন্দ্বী কোম্পানিগুলোর দাবি, নিজস্ব পণ্যের এমন প্যাকেজিং ব্যবস্থা মাইক্রোসফটকে একটি অনৈতিক সুবিধা দেয়। তাই সম্ভাব্য জরিমানা এড়াতে গত বছরের ৩১ অগাস্ট থেকে ইইউ সদস্যভুক্ত বিভিন্ন দেশ ও সুইজারল্যান্ডে পণ্য দুটি আলাদাভাবে বিক্রি শুরু করে কোম্পানিটি।

“গ্রাহকদের কাছে নিজস্ব স্পষ্টতা নিশ্চিত করতে, আমরা গত বছর ইউরোপীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল ও সুইজারল্যান্ডে ‘এম৩৬৫’ এবং ‘ও৩৬৫’ থেকে আলাদা করে টিমস বিক্রি শুরু করেছিলাম। আর এখন গোটা বিশ্বের গ্রাহকদের জন্য সেই পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করছি আমরা,” বলেন মাইক্রোসফটের এক মুখপাত্র।

“এর ফলে, ইউরোপীয় কমিশনের ফিডব্যাক নিয়েও কাজ করা যাবে, যেখানে বহুজাতিক কোম্পানিগুলো সহজেই বিভিন্ন ভৌগলিক অঞ্চলে নিজস্ব পণ্য মানসম্মত করার সুযোগ পাবে।”

এক ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফট বলেছে, তারা মাইক্রোসফট ৩৬৫ ও অফিস ৩৬৫-এর বাণিজ্যিক সংস্করণের একটি নতুন লাইনআপ চালু করছে, যেখানে ‘ইইএ (ইউরোপিয়ান ইকোনমিক এরিয়া)’ এবং সুইজারল্যান্ডের বাইরে থাকা অঞ্চলগুলোতেও টিমস থাকবে না।

এ ছাড়া, সেইসব অঞ্চলে একটি আলাদা নতুন টিমস অ্যাপ চালুর কথাও জানিয়েছে কোম্পানিটি।

১ এপ্রিল থেকে গ্রাহকরা হয় নিজেদের বিদ্যমান লাইসেন্সিং চুক্তি অব্যাহত রাখতে পারবেন, অথবা সেটি রিনিউ, আপডেট বা সুইচ করে নতুন অফার ব্যবহার করতে পারবেন বলে প্রতিবেদনে লিখেছে রয়টার্স।