চাঁদে অবতরণের সময় উল্টে গেলেও সচল রয়েছে ওডিসিয়াস

ওডিসিয়াস চাঁদের কক্ষপথে ঢোকার পরে যখন অবতরণ থেকে কয়েক ঘণ্টা দূরে ছিল তখন দলটি বুঝতে পারে ল্যান্ডারটির ‘লেজার রেঞ্জ ফাইন্ডার’ কাজ করছে না।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Feb 2024, 10:53 AM
Updated : 25 Feb 2024, 10:53 AM

মার্কিন বেসরকারি কোম্পানি ইনটিউটিভ মেশিনসের ওডিসিয়াস মহাকাশযান চাঁদের পৃষ্ঠে উল্লম্বভাবে অবতরণ করতে পারেনি। অবতরণের সময় প্রত্যাশার চেয়ে গতি বেড়ে যাওয়ায় সম্ভবত এটি এক পাশে কাত হয়ে গেছে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নাসার সঙ্গে যৌথ বিজ্ঞপ্তিতে কোম্পানিটি এ তথ্য প্রকাশ করেছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে প্রযুক্তি সাইট এনগ্যাজেট।

তবে, ভালো খবর হল ওডিসিয়াসের সৌর কোষগুলো এখনো যথেষ্ট পরিমান সূর্যের আলো পাচ্ছে। ফলে, মহাকাশযানটিতে চার্জ থাকবে ও এর সঙ্গে যোগাযোগ বজায় রাখা সম্ভব হবে। এতে করে, চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে শীঘ্রই ছবি চলে আসবে বলে উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

ওডিসিয়াস সঠিকভাবে অবতরণ করেছে বলেই প্রাথমিক মূল্যায়নে উঠে এসেছিল। তবে, পরবর্তী বিশ্লেষণ উল্টে যাওয়ার দিকেই নির্দেশ করে। ‘স্টেল টেলিমেট্রি’ বা রিমোট তথ্য দেরিতে পৌঁছানোর কারণেই আগের ভুল তথ্য এসেছিল বলে জানিয়েছেন ইনটিউটিভ মেশিনসের সিইও এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ আলটেমাস।

জেফ কুন্সের মুন ফেইজ ভাস্কর্যগুলো বাদে সব পেলোড উল্টে যাওয়া দিকে রয়েছে৷ মহাকাশযান ও বিজ্ঞান বিষয়ক নাসার পাঠানো সরঞ্জাম এর যাত্রা ও অবতরণের তথ্য সংগ্রহ করছে। কী ঘটেছে তা আরও ভালভাবে বোঝার জন্য এসব তথ্য ব্যবহার করবে যানটির দল। তবে, সবকিছু বিবেচনা করলে এখন পর্যন্ত এটি সম্ভবত ভালো কাজ করছে বলেই উঠে এসেছে প্রতিবেদনে।

দলটি এম্ব্রি-রিডল অ্যারোনটিকাল ইউনিভার্সিটির ছাত্রদের তৈরি ‘ইগলক্যাম’ মহাকাশযান থেকে ‘ইজেক্ট’ করার বা ছাড়ানোর পরিকল্পনা করেছে, যাতে এটি ল্যান্ডারটির ও আশপাশের ছবি তুলতে পারে। সম্ভবত এ সপ্তাহের শেষ নাগাদ এ পরিকল্পনা কার্যকর করা হতে পারে। অবতরণের মুহূর্তের ছবি তোলার জন্য সে সময়েই ক্যামেরাটি ইজেক্ট করার কথা থাকলেও বাধ সাধে সেদিনের সমস্যাগুলো।

ওডিসিয়াস চাঁদের কক্ষপথে ঢোকার পরে যখন অবতরণের কয়েক ঘণ্টা বাকী ছিল তখন দলটি বুঝতে পারে ল্যান্ডারটির ‘লেজার রেঞ্জ ফাইন্ডার’ কাজ করছে না। এটি নির্ভুল ন্যাভিগেশন বা অবতরণের চাবিকাঠি।

আর এটি ঘটেছে সম্পূর্ণভাবে সংশ্লিষ্ট কোনো মানুষের ত্রুটির কারণে। আলটেমাসের মতে, কেউ এটি চালু করার নিরাপত্তা সুইচটি অন করতে ভুলে গিয়েছিল, তাই সেটি কাজ করেনি। এ উপলব্ধিটি ছিল ‘পেটে একটি ঘুষি খাওয়ার মতো’, বলেন আলোটেমাস। পাশাপাশি, মিশনটি ব্যর্থ হতে চলেছে বলেও ভেবেছিলেন তারা।

তবে, সৌভাগ্যবশত ইনটিউটিভ মেশিনসের সিটিও এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা টিম ক্রেইনের শেষ মুহূর্তের বুদ্ধি কাজে লাগিয়েছিল দলটি। তিনি পরামর্শ দেন ল্যান্ডারটিতে থাকা ‘নেভিগেশন ডপলার লিডার’ (এনডিএল) নামের নাসার পেলোড ব্যবহার করে অবতরণ করার জন্য।

শেষ পর্যন্ত, সচল থেকেই চাঁদের পৃষ্ঠে পৌঁছেছে ওডিসিয়াস। চাঁদে রাত নেমে আসার আগ পর্যন্ত, এক সপ্তাহের কিছু বেশি সময় ধরে এ মিশন চলার সম্ভাবনা রয়েছে বলে প্রতিবেদনে লিখেছে এনগ্যাজেট।