বিশ্বকাপ দলে ২০১৪ আসরের ছায়া দেখছেন মেসি

সামর্থ্য ও ঐক্যের দিক থেকে দুটি দলের মাঝে দারুণ মিল দেখছেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Nov 2022, 02:09 PM
Updated : 12 Nov 2022, 02:09 PM

চার আসরে খেলার অভিজ্ঞতা নিয়ে এবার কাতারে নোঙর ফেলতে যাচ্ছেন লিওনেল মেসি। বিশ্ব সেরার মঞ্চে আর্জেন্টিনার হয়ে তার সেরা অর্জন ২০১৪ আসরে রানার্সআপ হওয়া। সামর্থ্য ও ঐক্যের দিক থেকে এবারের দলের সঙ্গে ৮ বছর আগের দলটির ভীষণ মিল দেখছেন পিএসজি তারকা। 

আর্জেন্টিনা অধিনায়ক আশাবাদী, সেবারের মত এবারও অনেকদূর যাবে তার দল। 

১৯৮৬ সালে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর বিশ্বকাপের পরবর্তী আসরগুলো লাতিন আমেরিকার দেশটির জন্য কেবলই হতাশার৷ দৃশ্যপটে বড় পরিবর্তনের সম্ভাবনা জাগায় ২০১৪ সালের ব্রাজিল আসর। 

সেবার মেসি নিজে ছিলেন দারুণ ছন্দে। অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের মিশেলে দলটিতে তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন হাভিয়ের মাসচেরানো, আনহেল দি মারিয়া, সের্হিও আগুয়েরোরা।

দলগত নৈপুণ্যে দারুণ ফুটবল খেলে ধাপে ধাপে এগিয়ে শিরোপা থেকে কেবল এক ধাপ দূরত্বে ছিল আর্জেন্টিনা। কিন্তু ফাইনালে তাদের হৃদয় ভেঙে শিরোপা জেতে জার্মানি। 

আরেকটি বিশ্বকাপের আগে সেই হতাশা ভোলার জন্য এবারের দলটি ভক্তদের আশা যোগাচ্ছে বেশ। গত বছর কোপা আমেরিকা জেতা দলটি আছে দুর্দান্ত ছন্দে। অপরাজিত আছে টানা ৩৫ ম্যাচে। 

লিওনেল স্কালোনির দলে মেসির সঙ্গে আছেন এমিলিয়ানো মার্তিনেস, লেয়ান্দ্রো পারেদেস, দি মারিয়া ও লাউতারো মার্তিনেসের মতো খেলোয়াড়রা। বাজির দরে ফেভারিটের তালিকার মধ্যেই আছে দলটি। 

আর্জেন্টিনার ক্রীড়া দৈনিক ওলে’তে শুক্রবার প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ২০১৪ বিশ্বকাপের স্মৃতিচারণা করেন মেসি। ৩৫ বছর বয়সী এই ফুটবলার বলেন, ওই দলটির মধ্যে যে দৃঢ় মনোবল ছিল, স্কালোনির দলের মাঝেও তার ছাপ দেখছেন তিনি।

 “২০১৪ বিশ্বকাপে আমরা খুব ভালো করেছিলাম, যা অবিস্মরণীয় এক অভিজ্ঞতা ছিল। আমি খুব উপভোগ করেছিলাম। আমার মধ্যে এই ব্যাপারটা গেঁথে গিয়েছিল যে, এটি একটি শক্তিশালী, ঐক্যবদ্ধ দল। দীর্ঘমেয়াদে এটাই আপনাকে লক্ষ্যের দিকে নিয়ে যায়।” 

“আমি ২০১৪ বিশ্বকাপ দলের সঙ্গে (এবারের আসরের দলের) অনেক মিল অনুভব করছি। এটা আমার কাছে খুব কাছাকাছিই মনে হয়, কারণ যে দলটা একত্রিত হয়েছিল, তাদের দৃঢ় মনোবল ছিল। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।” 

মেসির প্রথম বিশ্বকাপ ছিল ২০০৬ সালে। অনভিজ্ঞতার কারণে সেবার খুব একটা খেলার সুযোগ পাননি তিনি। দল বিদায় নেয় কোয়ার্টার-ফাইনাল থেকে। 

পেছন ফিরে ওই জার্মানি আসর নিয়ে মেসি বললেন, সেবার আরও বেশি ম্যাচ খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। 

“(নিজের) প্রথম বিশ্বকাপে আমি একদমই তরুণ ছিলাম। আমি এটি উপভোগ করেছি এবং একই সঙ্গে আমার আরও বেশি খেলার ইচ্ছা, আরও বেশি চাওয়ার সরলতা ও ক্ষোভ ছিল। একদিক থেকে এটা ভালো। অন্যদিকে, আমি অনেক কিছু উপভোগ করা মিস করেছি।” 

কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা লড়বে ‘সি’ গ্রুপে। সেখানে সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের সঙ্গী সৌদি আরব, মেক্সিকো ও পোল্যান্ড। 

লিওনেল স্কালোনির দলের অভিযান শুরু আগামী ২২ নভেম্বর, সৌদি আরবের বিপক্ষে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক