নৌকায় এসেছো?, ফের্নান্দেসকে রোনালদোর ‘খোঁচা’

রোনালদোর আলোচিত সাক্ষাৎকার পর্তুগালের ড্রেসিং রুমে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে জোর দিয়ে বললেন বেনফিকার মিডফিল্ডার মারিও।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Nov 2022, 06:01 PM
Updated : 15 Nov 2022, 06:01 PM

হাসিমুখে ড্রেসিং রুমে ঢুকলেন ব্রুনো ফের্নান্দেস। একজনের সঙ্গে মেলালেন হাত। সামনেই ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। জাতীয় দলের পাশাপাশি ক্লাবেও সতীর্থ তারা। তবে দুজনের সাক্ষাৎটা ঠিক ‘স্বাভাবিক’ হলো না। হাত মেলালেন ঠিকই, কিন্তু সম্পর্কে যেন সেই উষ্ণতার ছোঁয়া নেই। এ নিয়ে নানা গুঞ্জন ডালপালা মেলার মধ্যেই জোয়াও মারিও বললেন, ভিডিও দেখে যে কেউ বিভ্রান্ত হতেই পারে, তবে সেটা ছিল রোনালদো ও ব্রুনোর মজার মুহূর্ত।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ, মালিকপক্ষ এবং সর্বোপরি পুরো ক্লাব নিয়ে রোনালদো যে বিস্ফোরক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন, তারই প্রভাব কি পড়েছে দুজনের সম্পর্কে? তাদের আরেক সতীর্থ অবশ্য হেসেই উড়িয়ে দিয়েছেন তেমন কিছুর সম্ভাবনা।

অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতায় গত দেড় দশকে অসাধারণ সব সাফল্যে ফুটবলের মহাতারকা হয়ে গেছেন রোনালদো। বর্ষসরা ফুটবলারের পুরস্কার ব্যালন ডি’অর জিতেছেন পাঁচবার। ক্লাব ও আন্তর্জাতিক ফুটবল মিলিয়ে রেকর্ড গোলদাতা তিনি। আরও অসংখ্য রেকর্ড ও কীর্তি গড়েছেন পর্তুগাল অধিনায়ক।

কিন্তু তার পারফরম্যান্সে এখন বয়সের ছাপ পড়তে শুরু করেছে স্পষ্ট। জাতীয় দলে শুরুর একাদশে জায়গা ধরে রাখলেও ক্লাবে বিষয়টা ভিন্ন। চলতি মৌসুমের শুরু থেকে ইউনাইটেডে কোচ এরিক টেন হাগের দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েছেন তিনি। কয়েক ম্যাচে তো বদলি হিসেবেও খেলার সুযোগ পাননি।

অসুস্থতার কারণে খেলতে পারেননি ইউনাইটেডের গত দুই ম্যাচে। এর মাঝেই বোমা ফাটান রোনালদো। ব্রডকাস্টার পিয়ার্স মর্গ্যানকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তীব্র সমালোচনা করেন ক্লাব ইউনাইটেড, এর মালিকপক্ষ এবং কোচ টেন হাগের। ক্লাব কর্তৃপক্ষ তার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে অভিযোগ করেন ৩৭ বছর বয়সী তারকা।

স্বাভাবিকভাবে রোনালদোর এসব অভিযোগ নিয়ে চলছে আলোচনা ও সমালোচনা। এর মাঝেই সোমবার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। যেখানে রোনালদো-ফের্নান্দেসের মধ্যে ‘শীতল সম্পর্কের’ আঁচ পাচ্ছেন অনেকেই।

কাতার বিশ্বকাপের আগে লিসবনে প্রস্তুতি নিচ্ছে পর্তুগাল দল। সেখানেই ড্রেসিং রুমে ঘটে এই কাণ্ড। রোনালদোর দিকে সরাসরি না তাকিয়ে তার বাহুতে হাত রাখেন ফের্নান্দেস। রোনালদো সঙ্গে সঙ্গেই করমর্দনের জন্য হাত বাড়ান সতীর্থের দিকে, ফের্নান্দেস হাতে থাকা ব্যাগটি পাশে রেখে হাত মেলান ঠিকই; তবে রোনালদোর মুখের দিকে তাকাননি।

কোনোরকমে হাত মিলিয়েই ঘুরে হাঁটা দেন। রোনালদো তার দিকে তখন কিছুটা হতভম্ব হয়ে তাকিয়ে ছিলেন। পরমুহূর্তে ফের্নান্দেস ঘুরে কিছু একটা বলেন।

পরে সংবাদ সম্মেলনে এই বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে মিডফিল্ডার মারিও হাসতে হাসতে বলেন পুরো বিষয়টাই ছিল মজা করার জন্য।

“আমি ওখানে ছিলাম, মজার মুহূর্ত ছিল। বাইরে যেটার ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তাদের পুরো বিষয়টা ছিল মজা করে। কারণ ব্রুনো দেরিতে এসেছিল, একেবারে শেষ ভাগে দলে যোগ দেওয়াদের একজন। রোনালদো তখন ব্রুনোকে জিজ্ঞাসা করে, সে কি নৌকায় এসেছে।”

“আমি বুঝতে পারছি, যে ভিডিও দেখে অনেকভাবে ভুল অর্থ করা যায়; কিন্তু তাদের মধ্যে পুরো বিষয়টাই হয়েছে মজা করে। তাদের মধ্যে খুব ভালো সম্পর্ক, কারণ তারা (ক্লাবে) একসঙ্গে খেলে। গতকাল সারা দিন আমি তাদের দেখেছি, তাদের মধ্যে কোনো সমস্যা নেই।”

রোনালদোর আলোচিত সাক্ষাৎকার পর্তুগালের ড্রেসিং রুমে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলেও জোর দিয়ে বললেন বেনফিকার মিডফিল্ডার মারিও।

আগামী ২৪ নভেম্বর ঘানার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে পর্তুগালের বিশ্বকাপ অভিযান।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক