বেনজেমার পেনাল্টি মিস, রিয়ালের হোঁচট

লা লিগায় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ফেরার সুযোগ হারাল কার্লো আনচেলত্তির দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 Oct 2022, 08:59 PM
Updated : 2 Oct 2022, 08:59 PM

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে লড়াই জমল বেশ। ভিনিসিউস জুনিয়রের চমৎকার গোলে এগিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। বিরতির পরপরই ম্যাচে ফিরল ওসাসুনা। চোট কাটিয়ে ফেরার রাতে নায়ক হওয়ার সুযোগ পেয়ে উল্টো পেনাল্টি মিসের হতাশা সঙ্গী হলো করিম বেনজেমার। লা লিগার পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ফেরার সুযোগ হারাল কার্লো আনচেলত্তির দল।

সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে রোববার রাতে লিগ ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে। শেষ দিকে একজন কম নিয়ে খেলেছে ওসাসুনা।

চলতি আসরে টানা ছয় জয়ের পর প্রথমবার পয়েন্ট হারাল গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মৌসুমে প্রথম ৯ ম্যাচ জয়ের পর জিততে ব্যর্থ হলো তারা।

আগের রাতে ইন্দোনেশিয়ায় লিগা ওয়ানের একটি ম্যাচ শেষে দাঙ্গায় ও পদদলিত হয়ে হতাহতদের স্মরণে ম্যাচ শুরুর আগে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

পঞ্চদশ মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগ পায় ওসাসুনা। তবে বাঁ দিক থেকে বল পাশের জালে মারেন বার্সেলোনা থেকে ধারে দলটিতে খেলতে আসা উইঙ্গার আব্দেসামাদ।

সপ্তদশ মিনিটে সুযোগ আসে রিয়ালের সামনে। ডান দিক থেকে ডি-বক্সে দারুণ ক্রস বাড়ান দানি কারভাহাল। লাফিয়ে বলের নাগাল পাননি বেনজেমা।

৩৫তম মিনিটে প্রতি-আক্রমণে দারুণ সুযোগ তৈরি করে ওসাসুনা। এবার ডি-বক্সে দুরূহ কোণ থেকে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি ২০ বছর বয়সী আব্দেসামাদ।

৩৯তম মিনিটে গোল প্রায় পেয়েই যাচ্ছিলেন বেনজেমা। বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে উঠে বক্সে ঢুকে ক্রস বাড়ান ভিনিসিউস। প্রথম স্পর্শে ফরাসি ফরোয়ার্ডের ভলি পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

৪২তম মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল। বাঁ দিক থেকে ওসাসুনার বক্সে ক্রস দেন ভিনিসিউস। বেনজেমা তখন ছিলেন অফসাইড পজিশনে, তবে বল স্পর্শের কোনো চেষ্টা তিনি করেননি। এক ড্রপ খেয়ে বল সরাসরি আশ্রয় নেয় জালে!

এই মৌসুমে লিগে সাত ম্যাচে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডের গোল হলো ৫টি।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে কিকে গার্সিয়ার দারুণ গোলে সমতায় ফেরে ওসাসুনা। উনাই গার্সিয়ার ক্রসে ডি-বক্সে লাফিয়ে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ডের হেডে বল দূরের পোস্টের ওপরের কোণা দিয়ে জালে জড়ায়। লাফিয়ে নাগাল পাননি থিবো কোর্তোয়ার চোটে সুযোগ পাওয়া গোলরক্ষক আন্দ্রি লুনিন।

পরক্ষণে এগিয়ে যাওয়ারও সুযোগ পায় সফরকারীরা। এবার কিকে গার্সিয়ার শট পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।

৫৩তম মিনিটে জোড়া পরিবর্তন আনেন রিয়াল কোচ আনচেলত্তি। অহেলিয়া চুয়ামেনি ও দানি সেবাইয়োসকে তুলে মাঠে নামান এদুয়ার্দো কামাভিঙ্গা ও ফেদেরিকো ভালভেরদেকে।

৬০তম মিনিটে কাছ থেকে বেনজেমার নেওয়া শট ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক। যদিও অফসাইডে ছিলেন গত আসরের সর্বোচ্চ স্কোরার। একটু পর বেনজেমার পাসে বক্সে ঢুকে রদ্রিগোর শট উড়ে যায় ক্রসবারের ওপর দিয়ে।

৭৯তম মিনিটে বেনজেমার পেনাল্টি মিসের ওই হতাশা। তার শটে বল গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে ক্রসবারে লাগে। তিনি নিজেই ফাউলের শিকার হলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টি দিয়েছিলেন রেফারি। আর ওসাসুনার ডিফেন্ডার দাভিদ গার্সিয়া দেখেন লাল কার্ড।

দুই মিনিট পর বেনজেমা জালে বল পাঠালেও অফসাইডের কারণে গোল মেলেনি। বাকি সময়ে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ ধরে রাখলেও কাঙ্ক্ষিত গোল আর পায়নি রিয়াল।

৭ ম্যাচে ছয় জয় ও এক ড্রয়ে ১৯ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে রিয়াল। সমান ম্যাচে রিয়ালের সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল পার্থক্যে শীর্ষে বার্সেলোনা।

১৬ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে আথলেতিক বিলবাও।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক