নৌকার বাইরে গেলেই হিন্দুদের ওপর নির্যাতন: দাবি নিতাই রায়ের

তিনি আরও বলেন, “আওয়ামী লীগ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে তাদের ভোটব্যাংক মনে করে। ফলে সংখ্যালঘুরা স্বাধীনভাবে তাদের মতামতও প্রকাশ করতে পারে না।”

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Feb 2024, 02:32 PM
Updated : 3 Feb 2024, 02:32 PM

নৌকা প্রতীকের বাইরে গেলেই আওয়ামী লীগ হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর নির্যাতন চালায় বলে দাবি বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরীর। 

তিনি বলেছেন, “গত ৭ জানুয়ারি ডামি নির্বাচনের আগে ও পরে দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে হামলা করে তাদের হতাহত করা হয়েছে।” 

সদ্য সম্পন্ন সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে ‘সংখ্যালঘু’ নির্যাতনের তথ্য সংগ্রহে বিএনপি গঠিত তদন্ত কমিটির প্রধান হিসেবে শনিবার ফরিদপুর সদর উপজেলার কানাইপুর ইউনিয়নের রনকাইল গ্রামে পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রতিনিধি দলের সদস্যরা সরেজমিনে গিয়ে সহিংসতার প্রত্যক্ষ বর্ণনা শুনেন বলে ফরিদপুর জেলা বিএনপির সদস্যসচিব (ভারপ্রাপ্ত) আফজাল হোসেন খান পলাশ জানান।  

পলাশ বলেন, “সহিংসতার শিকার হওয়ারা জানিয়েছেন, নৌকায় ভোট না দেওয়ায় তাদের ওপর হামলা চালানো হয় এবং এখনো তারা ভীতসন্ত্রস্ত।” 

নিতাই রায় চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, “সরেজমিনে এসব তথ্য বিএনপির তদন্ত কমিটি সংগ্রহ করছে। পরে এসব নিয়ে কেন্দ্রীয়ভাবে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।” 

তিনি আরও বলেন, “আওয়ামী লীগ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে তাদের ভোটব্যাংক মনে করে। ফলে সংখ্যালঘুরা স্বাধীনভাবে তাদের মতামতও প্রকাশ করতে পারে না। নৌকার বাইরে গেলেই তাদের ওপর হামলা-নির্যাতন নেমে আসে।” 

এ সময় কেন্দ্রীয় বিএনপি গঠিত এই তদন্ত কমিটির সদস্য, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ ধর্মবিষয়ক সম্পাদক অমলেন্দু দাস অপু, যুবদলের সহ আইনবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরে আলম সিদ্দিকী সোহাগ, জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্যসচিব আফজাল হোসেন খান পলাশ, যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল, যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি বেনজির আহমেদ তাবরিজ, জেলা যুবদলের সভাপতি রাজিব হোসেন সহ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা ছিলেন।  

পরে প্রতিনিধি দলটি ঝিনাইদহের উদ্দেশে রওনা দেয়।