বরগুনায় খাবারে চেতনানাশক মিশিয়ে চুরি, হাসপাতালে স্বামী-স্ত্রী

পুলিশ জানায়, উন্নত চিকিৎসার জন্য স্বামী-স্ত্রীকে বরিশালে পাঠান তালতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক।

বরগুনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 April 2024, 04:24 PM
Updated : 1 April 2024, 04:24 PM

বরগুনার তালতলীতে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক খাইয়ে পরিবারের সদস্যদের অচেতন করে চুরির ঘটনা ঘটেছে। খাবার খেয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বামী-স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। 

রোববার রাতে জেলার নয়াপাড়া এলাকার বাচ্চু হাওলাদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও ভুক্তভোগীদের স্বজনরা জানান। 

বাচ্চু হাওলাদারের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 

স্বজনরা আরও জানান, রোববার রাতে জানালা ভেঙে বাচ্চু হাওলাদারের ঘরে ঢুকে ভাতের হাড়িতে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে রাখে চোর চক্র। সেই হাড়ির ভাত খেয়ে পরিবারটি ঘুমে ঢলে পড়ে। 

ভুক্তভোগীর স্বজনদের দাবি, রাতে চোরেরা ঘরে থাকা টাকা, সোনার গহনা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। 

সোমবার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয়রা বিষয়টি টের পান। 

প্রতিবেশী স্কুলশিক্ষিকা নাসরিন আক্তার বলেন, “প্রতিদিন দরজা খোলাই থাকে। কিন্তু আজকে সকালে দেখা যায়, দরজা বন্ধ কিন্তু কারও কোনো সাড়াশব্দ নেই।” 

নাসরিন আক্তার বলেন, “সন্দেহ হলে ঘরের পেছনে গিয়ে দেখি, একটা রুমের জানালা ভাঙা। সেখান দিয়ে আমরা ঘরে ঢুকে দেখি, বাচ্চু ও তার স্ত্রী অচেতন অবস্থায় আছেন। ঘরের মালপত্র সব এলোমেলো। পরে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে তালতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়।” 

স্থানীয় ইউপি সদস্য নজরুল ইসলাম লিটু বলেন, “রোগীদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের বরিশালে পাঠানো হয়েছে।” 

অসুস্থ থাকায় বাচ্চু হাওলাদার বা তার স্ত্রীর বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি। 

তালতলী থানার ওসি শহিদুল ইসলাম খান বলেন, “ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”