ফরিদপুরে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া ৪ নবজাতকই মারা গেল

গত শুক্রবার ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চার পুত্রসন্তানের জন্ম দেন এক প্রসূতি।

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Jan 2024, 12:25 PM
Updated : 14 Jan 2024, 12:25 PM

ফরিদপুরে একসঙ্গে জন্ম নেওয়া চার নবজাতকের সবকটি মারা গেছে।   

ঢাকার শিশু হাসপাতালে গত শনিবার রাত ২টার দিকে দুটি ও ভোর ৪টার দিকে বাকি দুই নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে বলে তাদের বাবা রাজন বিশ্বাস জানান।  

পরে রোববার সকালে শহরের অম্বিকাপুর শ্মশানে চার নবজাতককে একসঙ্গে সমাহিত করা হয়।

গত শুক্রবার ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বৈশাখী রায় (২৩) নামে রাজনের স্ত্রী চার পুত্রসন্তানের জন্ম দেন।

হাসপাতালটির গাইনি বিভাগের চিকিৎসক দিলরুবা জেবা বলেন, “প্রসূতি মা ছিলেন বেশ রুগ্ণ। গর্ভে চারটি শিশু ধারণ করার মত শক্তি তার ছিল না। গর্ভ ধারণের ২৬ সপ্তাহের মাথায় বাচ্চাগুলো জন্ম নেয়। বাচ্চাদের ওজন ছিল ৮০০ থেকে ৯০০ গ্রামের মধ্যে।”

তিনি আরো বলেন, “শরীর থেকে অতিরিক্ত মাত্রায় পানি বের হওয়ার কারণে নবজাতকদের মায়ের অবস্থা খারাপ হয়ে পড়ে। বাধ্য হয়ে প্রসবের সময়ের আগেই তার সিজার করতে হয়েছে। যে কারণে নবজাতকদের নানা সমস্যা ছিল।”

প্রসূতি বৈশাখী রায় ফরিদপুর শহরের পশ্চিম আলীপুর মহল্লার বাসিন্দা মদন রায়ের মেয়ে।

তার স্বামী রাজন বিশ্বাস (২৬) রাজবাড়ী জেলার ভাজনচালা এলাকার ভোলানাথ বিশ্বাসের ছেলে।

২০১৯ সালে পেশায় মুদি ব্যবসায়ী রাজনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয় বৈশাখীর। এ দম্পতির প্রথমবারের মত চারটি সন্তান হয়েছিল।

বৈশাখীর ছোট ভাই সঞ্জয় রায় জানান, শনিবার রাত ৯টার দিকে চার নবজাতককে ঢাকার শিশু হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ২টা থেকে ভোর পর্যন্ত সময়ের মধ্যে চারটি শিশুই মারা যায়।