শেরপুরে বিএনপির ৬৭ নেতাকর্মীর নামে নাশকতার মামলা, গ্রেপ্তার ৬

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাঠে বসে পেট্রলবোমা ও হাতবোমা তৈরি করা সময় তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানায় পুলিশ।

শেরপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 March 2024, 08:05 PM
Updated : 31 March 2024, 08:05 PM

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় বিএনপির ৬৭ নেতাকর্মীর নামে নাশকতার মামলা হয়েছে; গ্রেপ্তার হয়েছেন ছয় নেতাকর্মী।

ঝিনাইগাতী থানার এসআই ফরিদ উদ্দিন বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার মামলার পর আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার নেতাকর্মীরা হলেন- ঝিনাইগাতী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাহমুদুল হাসান রুবেল, মানিককুড়া ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি মমিন মেম্বার, মালিঝিকান্দা ইউনিয়ন ছাত্রদলের সহসভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন, গৌরিপুর ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সভাপতি মিজান, আহম্মদনগর ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সাজল ও ঝিনাইগাতী উপজেলা বিএনপির কর্মী মোহাম্মদ মোস্তফা।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, বুধবার রাত সাড়ে ১১টায় উপজেলার বনগাঁও তাসকেরাতুল বানাত মহিলা মাদ্রাসা মাঠে আসামিরা নাশকতার লক্ষ্যে পেট্রলবোমা ও হাতবোমা তৈরি করছিলেন। সেখানে অভিযান চালিয়ে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় ১২টি পেট্রলবোমা ও ১৪টি হাতবোমা উদ্ধার করা হয়।

এই মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মাহমুদুল হক রুবেলকে ৭ নম্বর আসামি করা হয়েছে। ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আসামি রয়েছে আরও ২৫ জন।

এর আগে সোমবার শ্রীবরদী থানায় রুবেলকে হুকুমের আসামি করে ১২০ জনের নামে আরেকটি নাশকতার মামলা করা হয়। ওই মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছেন নয়জন।

জেলা বিএনপির সভাপতি মাহমুদুল হক রুবেল বলেন, “আমি এলাকায় না থেকেও মামলার আসামি হয়েছি। সংসদ নির্বাচনে আমি যেন প্রার্থী হতে না পারি তাই এই মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। এর নিন্দা জানাই।”

[প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে: ফেইসবুক লিংক]