রামেক হাসপাতালে রোগীর ছেলেকে মারধরের অভিযোগ ইন্টার্নদের বিরুদ্ধে

শুক্রবার রিপন তার মাকে ফুসফুসের সমস্যার কারণে হাসপাতালের ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করান।

রাজশাহী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Feb 2024, 04:42 PM
Updated : 7 Feb 2024, 04:42 PM

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক রোগীর ছেলেকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে।

বুধবার সকালে ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনার পর হাসপাতালের পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এফ এম শামীম আহমেদ বলেন, “একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্তে কমিটি করা হবে। সুষ্ঠু তদন্ত করে যেই অপরাধী হোক না কেন তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।”

তবে এ ধরনের ঘটনা অপ্রত্যাশিত বলে মন্তব্য করেন হাসপাতালের পরিচালক।

অভিযোগকারী নগরীর বোয়ালিয়া থানার বোসপাড়া এলাকার বাসিন্দা সুমন পারভেজ রিপন বলেন, শুক্রবার তিনি তার মা পিয়ারা বেগমকে (৬০) ফুসফুসের সমস্যা নিয়ে হাসপাতালের ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। বুধবার সকালে তার মায়ের একটি রিপোর্টের বিষয়ে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কাছে জানতে চাইলে তারা একেকবার একের রকম তথ্য দেন।

“এ নিয়ে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের সঙ্গে আমার বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে তারা আমাকে তাদের ব্যক্তিগত চেম্বারে ডেকে নিয়ে যান। সেখানে তারা আমাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। ১০-১৫ জন মিলে আমাকে পিটিয়েছে।”

তাই ঘটনার বিচার দাবি করে হাসপাতাল পরিচালকের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান রিপন।

এ ব্যাপারে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

হাসপাতালের একজন কর্মকর্তা রাতে বলেন, দুই বছর ধরে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কোনো কমিটি নেই।