সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ: হল ত্যাগের নির্দেশ

“এটি সংঘর্ষের পর্যায়ে চলে যেতে পারে; এতে কলেজের সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে।“

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 April 2024, 01:22 PM
Updated : 2 April 2024, 01:22 PM

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার বেলা আড়াইটায় হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়ার পাশাপাশি মেডিকেল কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের হল সুপার ও তথ্য কর্মকর্তা অধ্যাপক নাসির উদ্দিন গাজী জানান।

নাসির উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি কর্তৃক সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ওই কমিটিকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপ মুখোমুখি অবস্থান নেয়।

“এটি সংঘর্ষের পর্যায়ে চলে যেতে পারে; এতে কলেজের সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। এ আশঙ্কায় সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে ছাত্র-ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন।“

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ জানায়, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগের রাতে ক্যাম্পাসে বহিরাগতদের নিয়ে শোডাউন ও ভাঙচুরের ঘটনায় কলেজ কর্তৃপক্ষ ২৭ মার্চ ছাত্রলীগ কর্মী আব্দুল মুহিতের ইন্টার্নশিপ দুই মাসের জন্য স্থগিত করে।

এরপর ২৯ মার্চ সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই কমিটিতে আব্দুল মুহিতকে সভাপতি ও তানভীর আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়।

কমিটি ঘোষণার পর থেকেই মুখোমুখি অবস্থানে ছিল দুই গ্রুপের নেতাকর্মীরা। সোমবার দুপুরে কলেজ চত্বরে ছাত্রলীগের নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে পদ বঞ্চিতরা অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। এ সময় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী এস এম রায়হান কবিরের অভিযোগ, কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ বাধে। এ সময় নতুন কমিটির নেতারা তার হাতের আঙুল ভেঙে দিয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে একাধিকবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি।