শোয়ার ঘরে গৃহবধূকে হত্যা, পুলিশের সন্দেহে স্বামী

ঘটনার পর থেকে স্বামী পলাতক; তাকে ধরতে অভিযান চলছে বলে জানায় পুলিশ।

নাটোর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 25 Sept 2022, 10:03 AM
Updated : 25 Sept 2022, 10:03 AM

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার শোয়ার ঘর থেকে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে; যাকে তার স্বামী হত্যা করেছে বলে সন্দেহ করছে পুলিশ।

বড়াইগ্রাম থানার ওসি আবু সিদ্দিক জানান, গোপালপুর স্কুলপাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে রোববার সকালে বিউটি বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়।

বিউটি ওই এলাকার আব্দুল বারেকের স্ত্রী। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার পর থেকে বারেক পলাতক রয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিহতের ভাই মতিয়ার রহমান বলেন, গোপালপুর মুন্সিপাড়া গ্রামের মোজাম্মেলের ছেলে পিন্টু আলী (৪৮) নামে এক ওয়ার্কশপ মিস্ত্রী তার বোনকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো। এই নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দ্বন্দ্ব হতো।

“এই আক্রোশে আব্দুল বারেক ঘুমন্ত অবস্থায় পরিকল্পিতভাবে আমার বোনকে হত্যা করেছে। “

ওসি বলেন, ফোনে খবর পেয়ে পুলিশ আব্দুল বারেকের বাড়িতে যায়। সেখানে শোয়ার ঘর থেকে তার স্ত্রীর গলাকাটা লাশ পাওয়া যায়। লাশ উদ্ধারের সময় ঘরের দরজা খোলা ছিল।

“এ সময় নিহতের এক মেয়েকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে সে জানায়, রাতে বাবা-মা একঘরে ছিলো। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে বাবা হাঁসুয়া দিয়ে গলাকেটে মাকে হত্যা করে পালিয়েছে। পরে কান্নাকাটি ও চিৎকারের শব্দ শুনে প্রতিবেশীরা ঘটনাস্থলে আসে।”

দুপুর পর্যন্ত এ ঘটনায় কেউ মামলা করেনি জানিয়ে এ পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ঘটনার পর থেকে বিউটির স্বামী পলাতক থাকায় তাকে সন্দেহ করা হচ্ছে। আব্দুল বারেককে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু হয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক