‘পরকীয়ার অপবাদে’ ৪ সন্তানের জননীর আত্মাহুতি

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ পরিবারের লোকেরা ‘পরকীয়ার অপবাদ দেওয়ায়’ চার সন্তানের জননীর আগুনে আত্মাহুতির খবর পাওয়া গেছে।

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 March 2016, 07:17 PM
Updated : 4 March 2016, 07:17 PM

শুক্রবার রাতে নিহত বিউটি বেগম (৩২) ছিলেন হাটভোগদিয়া গ্রামের আল আমিন খানের স্ত্রী।

লৌহজং থানার ওসি মোল্লা জাকির হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, শুক্রবার সকালে বিউটির স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদ ও স্থানীয় ইউপি সদস্যের দেওয়া অপবাদ সইতে না পেরে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

দগ্ধ বিউটিকে প্রথমে লৌহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে এদিনই রাত ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয় বলে ওসি জানান।

বিউটির চাচা আব্দুল ওহাব শেখ পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন, “১৫ বছর আগে বিয়ে হলেও কিছুদিন ধরে শ্বশুরবাড়ির লোকজন বিউটির নামে পরকীয়ার অভিযোগ আনে। এ নিয়ে তার স্বামী, শ্বশুর জব্বার খান, শাশুড়ি আমেনা বেগম ও ননদ কাউসারী বেগম তাকে নানা কথা বলে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তোলে।

“শুক্রবার সকালে আল আমিনের বাড়িতে সালিশ করতে আসেন স্থানীয় ইউপি সদস্য মনসুর আলী। এ সময় ইউপি সদস্যসহ পরিবারের সদস্যরা চার সন্তানের জননী বিউটিকে প্রকাশ্যে নানা অপবাদ দেয়।”

‘অপবাদ’ সইতে না পেরে তাদের উপস্থিতিতেই বিউটি ঘরে থাকা কেরোসিন গায়ে ঢেলে আত্মাহুতিরর চেষ্টা করেন বলে চাচা ওহাবের অভিযোগ।

পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে ওসি জানিয়েছেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক