নারায়ণগঞ্জে মন্ত্রীর মিছিলে প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন

অস্ত্রটি জব্দ করা হয়েছে বলে জানান জেলা পুলিশ সুপার।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Nov 2023, 05:13 PM
Updated : 29 Nov 2023, 05:13 PM

কয়েকশ নেতা-কর্মীর মিছিল নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। এ সময় তার কর্মী-সমর্থকদের মিছিলে এক ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র প্রদর্শন করতে দেখা গেছে।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গোলাম দস্তগীর গাজী নারায়ণগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পুনরায় মনোনয়ন পেয়েছেন। তিনি রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে গোলাম দস্তগীর গাজীর সমর্থনে মুড়াপাড়া এলাকা থেকে উপজেলা পরিষদ ভবনের দিকে কয়েকশ নেতা-কর্মীর মিছিল বের হয়। মিছিলের একটি অংশের নেতৃত্ব দেন উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রসুল কলি। ওই মিছিলের অগ্রভাগে এক ব্যক্তিকে কাঁধে শটগান ঝুলিয়ে ঘুরতে দেখা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অস্ত্রধারী ওই ব্যক্তি গোলাম রসুল কলির ব্যক্তিগত দেহরক্ষী। কলিও বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, “তার নাম মো. জামান। সে আমার দেহরক্ষী। শটগানটি তার নামে লাইসেন্স করা।”

কলি আরও বলেন, “অস্ত্রটি প্রকাশ্যে প্রদর্শন করা উচিত হয়নি। আসলে ও (জামান) ব্যাপারটা বুঝে উঠতে পারেনি। কিন্তু যখন বুঝতে পেরেছে, তখন সে মিছিল থেকে সরে গেছে। এমন ভুল সে আর করবে না, এ ব্যাপারে সতর্ক থাকবে।”

আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স প্রদান, নবায়ন ও ব্যবহার নীতিমালা অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তি তার লাইসেন্সেকৃত অস্ত্র আত্মরক্ষার প্রয়োজনে নিজে বহন বা ব্যবহার করতে পারবেন। তবে অন্যের ভীতি বা বিরক্তি উদ্রেক করতে পারে, এমনভাবে প্রদর্শন করা যাবে না।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সংসদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ফয়সাল হক বলেন, “শুধু নির্বাচনের সময়ই নয়, কোনো সময়ই লাইসেন্সধারী ব্যক্তিও তার অস্ত্র প্রকাশ্যে প্রদর্শন করতে পারবেন না। এইটা নীতিমালা বহির্ভূত। এই বিষয়ে আমরা শুনেছি। তবে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ কেউ এখন পর্যন্ত করেনি।”

“যদিও এসব ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকে”, বলেন ইউএনও।

এদিকে, রাতে জেলা পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, “খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নিয়ে অস্ত্রটি জব্দ করেছে পুলিশ। লাইসেন্সধারী কেউ প্রকাশ্যে অস্ত্র প্রদর্শন করতে পারেন না। অস্ত্রটির লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করে আমরা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে লিখিত দেব।”

অপরদিকে, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় বিপুলসংখ্যক কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে মিছিল করেছেন নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী। এমনকি মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময়ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে নেতা-কর্মীরা তার সঙ্গেই ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

জানতে চাইলে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ইউএনও ফয়সাল হক বলেন, “আমরা সাধারণত অল্প লোক নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার জন্য উৎসাহিত করি প্রার্থীদের। তারপরও কর্মী-সমর্থকরা কয়েকজন ঢুকে যায়। তবে বিপুল লোকজনের মিছিল হয়েছে কিনা এটা আমার জানা নাই। কারণ বাইরের সব খবর তো আমরা পাই না।”

এই ব্যাপারে জানতে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজীর মোবাইল ফোনের নম্বরে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ করেননি।