বালু ব্যবসায়ীর পা ভেঙে দেওয়ার মামলায় গ্রেপ্তার আরও ৭

মাদারীপুরে ছয়দিন আগে প্রকাশ্যে প্রতিপক্ষের লোকজন পিটিয়ে ওই ব্যবসায়ীর দুই পা ভেঙে দেন বলে জানায় পুলিশ।

মাদারীপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Feb 2024, 02:29 PM
Updated : 6 Feb 2024, 02:29 PM

মাদারীপুরে প্রকাশ্যে এক বালু ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে দুই পা ভেঙে দেওয়ার মামলায় প্রধান আসামিসহ সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর-সার্কেল) মো. আলাউল হাসানের নেতৃত্বে ঢাকার ডেমরায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। আগের তিনজনসহ এ নিয়ে মোট ১০ জনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ।

মঙ্গলবার বেলা দেড়টার দিকে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ কামরুল হাসান।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কালকিনি উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের দাতপুর গ্রামের প্রয়াত আজিবর সরদারের ছেলে সাইফুল সরদার, আতাউর সরদার, অলিল সরদার, একই গ্রামের সেকান্দার সরদারের ছেলে মানিক সরদার, সদর উপজেলার খোয়াজপুর ইউনিয়নের আব্দুস ছালাম হাওলাদারের ছেলে রাশেদ হাওলাদার, চর খোয়াজপুর গ্রামের মান্নান সরদারের ছেলে তুরান সরদার এবং একই গ্রামের সালাম হাওলাদারের ছেলে আপেল হাওলাদার।

সংবাদ সম্মেলনে কামরুল হাসান বলেন, “১ ফেব্রুয়ারি সকালে সাইফুল সরদারের নেতৃত্বে ১০ থেকে ১৫ জন লোক খোয়াজপুর-টেকেরহাট বাজারে প্রতিপক্ষ হোসেন সরদারের ওপর হামলা করেন। এ সময় তারা পিটিয়ে হোসেনের দুই পা ভেঙে দেন।

“তাকে প্রথমে জেলা সদর হাসপাতালে এবং পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

“এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়ায়। ভিডিওতে হোসেনকে ঘর থেকে টেনে বের করে পিটিয়ে পা ভাঙার দৃশ্য দেখা যায়।”

এ ঘটনায় ১৩ জনকে আসামি করে আহতের পরিবার মামলা করেন। পরে পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ দেখে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে বিভিন্ন সময় ১০ জনকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার সাইফুর সরদার ও আতাউর সরদারের বিরুদ্ধে আটটি মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলাউল হাসান এবং সদর মডেল থানার ওসি এ এইচ এম সালাউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।