নাটোরে মাদরাসার শিক্ষককে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে পেটাল দুর্বৃত্তরা

চিকুর মোড়ের নির্জন জায়গায় নিয়ে দুর্বৃত্তরা পাইপ ও হাতুড়ি দিয়ে তাকে পেটানো শুরু করে বলে জানান এই মাদরাসা শিক্ষক।

নাটোর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Nov 2023, 10:47 AM
Updated : 18 Nov 2023, 10:47 AM

নাটোর সদরে এক মাদরাসার শিক্ষককে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করে রাস্তায় ফেলে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নাটোর সদরের ছাতনীর মাঝদিঘা মাদরাসা থেকে তুলে চিকুর মোড় এলাকায় ওই শিক্ষককে ফেলা হয় বলে জানিয়েছেন নাটোর সদর থানার ওসি নাসিম আহমেদ।

আহত মো. সাইদুল ইসলাম (৩৮) সদর উপজেলার ছাতনী ইউনিয়নের মাঝদীঘা নুরানী হাফেজিয়া মাদরাসার মুহতামিম। তিনি মাঝদীঘা গ্রামের বাসিন্দা।
সাইদুল ইসলাম বলেন, “আমি মাগরিব নামাজ পড়া শেষ করে মাদরাসার অফিসে বসে কোরআন তেলাওয়াত করেছিলাম, হঠাৎ ৫-৬ জন মানুষ অফিস রুমের সামনে এসে জিজ্ঞেস করে আপনি কি সাইদুল ইসলাম? আমি হ্যাঁ বলতেই বলে একটু আসেন।

“বাহিরে যেতেই মুহূর্তের ভেতর রাস্তায় নিয়ে মাইক্রোতে তুলে ফেলে। তারপর চোখ মুখ বেঁধে ফেলে। পরে মাদরাসা থেকে প্রায় সাড়ে তিন থেকে চার কিলোমিটার দূরে চিকুর মোড়ের নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে পাইপ ও হাতুড়ি দিয়ে পেটানো শুরু করে।”

মাঝদীঘা নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসার সভাপতি ও ছাতনী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেন সরকার বলেন, “তিনি (সাইদুল ইসলাম) কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত না। তবে মাহফিল নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্যের সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার বিরোধ চলছিল।”

এ ব্যাপারে ওসি নাসিম আহমেদ‌ বলেন, ঘটনাটি শোনার পরে বিট অফিসারকে সেখানে পাঠিয়েছিলাম। ভিকটিমকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।এ বিষয়ে থানায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি।