রাবিতে ক্রিকেট খেলায় ‘বিশৃঙ্খলা’, ঢাবির দাবি হামলা

খেলোয়াড়দের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সমালোচনা করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Feb 2024, 06:11 PM
Updated : 12 Feb 2024, 06:11 PM

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেটের ফাইনালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলাকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া গেছে। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি তাদের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করা হয়েছে।

সোমবার বিকালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘটা এ ঘটনাকে অনাকাঙ্ক্ষিত উল্লেখ করে তিন সদস্যের কমিটি গঠনের কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

এদিকে খেলোয়াড়দের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সমালোচনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযোগ দপ্তরের পরিচালক মাহমুদ আলম।

ঘটনাটি তদন্তে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক মো. হুমায়ুন কবিরের নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। অন্যরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ জিয়াউর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ সুজন সেন ও শরীরচর্চা শিক্ষা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ আলী।

সোমবার রাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, “আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যকার ফাইনাল খেলায় আগে থেকেই বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছিল।

“তবে খেলার চূড়ান্ত পর্যায়ে আম্পায়ারের একটি বিতর্কিত সিদ্ধান্ত ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় খেলোয়াড়দের অখেলোয়াড় সুলভ আচরণের কারণে স্টেডিয়ামের দর্শক সারি থেকে বেশ কয়েকজন মাঠে প্রবেশ করলে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। এতে খেলা সাময়িক বন্ধ হয়ে যায়।”

পরে দুই আম্পায়ার ও দুদলের ম্যানেজারের সম্মিলিত সিদ্ধান্তে ম্যাচ রেফারি দুই দলকে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করেন বলে জানান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

অন্যদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল যখন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে তখন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকশ শিক্ষার্থী মাঠে ঢুকে খেলোয়াড়দের ওপর হামলা চালায়। এতে পাঁচ থেকে ছয়জন আহত হয়। এ ধরনের হামলা অখেলোয়াড় সুলভ এবং অনাকাঙ্ক্ষিত।

“আয়োজক হিসেবে আগে থেকেই সার্বিক শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব ছিল। তাদের উচিত ছিল স্বাগতিক হিসেবে প্রতিপক্ষ দলকে সম্মান দেখানো ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।”

অতীতেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ ধরনের প্রতিযোগিতা সুষ্ঠুভাবে আয়োজনে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছিল বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দুঃখ প্রকাশ করে বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানায়, এর আগেও দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় খেলাকে কেন্দ্র করে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। সেখানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের খেলোয়াড়দের ওপর হামলা চালানো হয়েছিল।

এ ঘটনা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিকে প্রত্যাখ্যান এবং এমন বিজ্ঞপ্তি প্রচারে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।