আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী 'চুপচাপ' বসে থাকবে না: বিএনপিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি

“বিএনপি রাস্তাঘাট বন্ধ করবে, জানমালের ক্ষতি করবে- এটা আমরা করতে দেব না,“ বলেছেন তিনি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 July 2022, 11:07 AM
Updated : 31 July 2022, 11:07 AM

বিএনপি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের নামে ‘জানমালের ওপর আঘাত’ করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ‘চুপচাপ বসে থাকবে না’ বলে হুঁশিয়ার করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

জাতীয় শোক দিবস সামনে রেখে রোববার সচিবালয়ে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সরকারের এই অবস্থান তুলে ধরেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, “তারা (বিএনপি) নিয়মতান্ত্রিকভাবে যে সমস্ত মিটিং, সভা, প্রচার- এগুলোতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তারা প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিদিন মিটিং করছে, আমরা বাধা দিচ্ছি না। কিন্তু তারা রাস্তাঘাট বন্ধ করবে, জানমালের ক্ষতি করবে- এটা আমরা করতে দেব না।“

বিএনপির ডাকে সাড়া দিয়ে দেশের জনগণ আন্দোলনে নামবে কি না- জনগণই সে সিদ্ধান্ত নেবে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, “জনগণ এটা নিশ্চিত যে, দেশ যেভাবে এগিয়ে চলছে, আলোকিত হচ্ছে, সেখানে আর দেশের মানুষ কোনদিন অন্ধকারে ফিরে যাবে না।"

নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে কি না, সেটা তাদের নিজস্ব সিদ্ধান্ত মন্তব্য করে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, “বিএনপি একটি রাজনৈতিক দল, তার রাজনৈতিক কৌশল রয়েছে। রাজনৈতিক কৌশলে নির্বাচনে যাবে কি যাবে না এটা তাদের সিদ্ধান্ত।“পলাতক জঙ্গি চাকরিচ্যুত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হক এবং সালাউদ্দিন সালেহীনের কোনো খোঁজ মিলেছে কি না জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, "আইএস টাইএস বলে কি কি যেন আছে, আমাদের দেশে যদিও এটা নাই। এদেশের মানুষ কোনো দিন জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়নি এবং দেবেও না।

“মা তার ছেলেকে ধরিয়ে দিয়েছে, যেসব জঙ্গি নিহত হয়েছে তাদের লাশ স্বজনরাও গ্রহণ করেননি। এটাই হলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশের জনগণ কোনোদিন জঙ্গিদের আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়নি। কাজেই যারা পলাতক (জিয়া ও সালেহীন) তারা স্বপ্নই দেখবে। তারা কিছুই এখানে ঘটাতে পারবে না।“শোকের মাস অগাস্ট ঘিরে প্রতিবছর আলাদাভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। এবারও কোনো ফাঁক ফোকর যেন না থাকে, তা দেখতেই এ সভার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ১৫ অগাস্ট ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরের পাশাপাশি ধানমন্ডি লেকেও নৌ পুলিশের নিরাপত্তা থাকবে। এ ছাড়া গোয়েন্দা নজরদারিও থাকবে। ফেইসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোয় যেন কোন ধরনে গুজব না ছড়ায় তাও দেখভাল করবে গোয়েন্দারা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক