ইসি ‘আধা রোবট’ হয়ে গেছে: রিজভী

“এই রোবটদের সুইচ আছে শেখ হাসিনার হাতে,” বলেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Dec 2023, 01:34 PM
Updated : 4 Dec 2023, 01:34 PM

জনপ্রিয় রাজনৈতিক দলগুলোকে সরিয়ে নামকাওয়াস্তে দল গঠন করে তাদের ভোটের মাঠে নামানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তার কথায়, “একতরফা নির্বাচনকে লোক দেখানো বৈধতা দিতে সরকারের প্রস্তুতি ছিল প্রার্থী বেচাকেনার হাট জমিয়ে তোলার। কর্মীবিহীন নাম সর্বস্ব দলের নেতাদের পকেটে পুরতে উদয়াস্ত খেটেও সুবিধা করতে পারেনি সরকারি দলের আজ্ঞাবহ গোয়েন্দা কর্মকর্তারা।

“একদিকে যেমন চলেছে প্রার্থী বেচাকেনা, তেমনই তাদের রাজি করাতে কাজে লাগানো হয়েছে চাপ প্রয়োগের কৌশলও। মামলা, হামলা, হুমকি- কোনো কিছুই বাদ যায়নি এ থেকে। কথিত দু-তিনটি রাজদল বা কুইন্স পার্টি নামকাওয়াস্তে গঠন করে বিএনপিসহ সকল জনপ্রিয় দলকে দূরে সরিয়ে তাদের নির্বাচনের পাতানো খেলার মাঠে নামানো হয়েছে।”

সোমবার বিকালে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ‘একতরফা’ নির্বাচনের প্রসঙ্গ টেনে তিনি এ কথা বলেন।

গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় সংঘর্ষের জের ধরে সমাবেশ ভণ্ডুল হয়ে যাওয়ার পর বিএনপির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী গ্রেপ্তার হয়েছেন। তার মধ্যে আত্মগোপনে থেকে দলীয় কর্মসূচি ঘোষণার পাশাপাশি মুখপাত্রের ভূমিকায় আছেন রিজভী।

কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে খেদ প্রকাশ করে রিজভী বলেন, “আর নির্বাচন কমিশনের অবস্থা কী? প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ নির্বাচন কমিশনারবৃন্দ আধা-রোবট হয়ে গেছেন। তাদের দৌলতেই শেখ হাসিনা ভোটারবিহীন নির্বাচনের বৈতরণী পার করতে চাচ্ছেন। নানা কৌশল করছে সেগুলো তারা বাস্তবায়ন করছেন। কারণ এই রোবটদের সুইচ আছে শেখ হাসিনার হাতে।”

সম্প্রতি দলবদলে নৌকা থেকে নির্বাচনে দাঁড়ানো বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমরের নাম না নিয়ে  রিজভী বলেন, “নির্বাচন কমিশন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বলে যাচ্ছেন। এই প্রহেলিকার উত্তর লুকিয়ে আছে সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায়। বাসে আগুন দেওয়ার মামলায় অভিযুক্ত আসামি তেলেসমাতির জামিনে এক ঘণ্টায় কারামুক্ত হয়ে নৌকায় চড়ে-স্বঘোষিত হ্যাডমওয়ালা ব্যক্তির মুখ থেকে শুনলাম… ২ কোটি দিয়া প্রত্যেককে ইলেকশনে দাঁড় করানো হয়েছে! তিনিই বলেছেন, ‘এগুলো তো ফকিন্নি পার্টি’। দু-তিন কোটি টাকা পাইছে, দাঁড় করাইছে।”

গত ২৮ অক্টোবরে সংঘর্ষের ঘটনায় গাড়ি পোড়ানোর মামলায় গত ৫ নভেম্বর গ্রেপ্তার হন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর। এর ২৪ দিনের মাথায় বুধবার তিনি জামিনে মুক্তি পান। পরদিন তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে ঝালকাঠি-১ আসনে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন, বহিষ্কার হন বিএনপি থেকে।

‘বাকশাল ২.০ ভার্সন’

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘‘ওবায়দুল কাদের সাহেব প্রতিনিয়ত শব্দবাজি ফাটিয়ে মানুষের জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছেন। তিনি এখন বলেন, ২৯টি নিবন্ধিত দল নিয়ে তারা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করছেন। তাদের এই ২৯ দলের মধ্যে তিন-চারটি বাদে অন্যগুলোর নামও শোনেনি কেউ।

‘‘স্বগৃহে ইলেকশন থিয়েটারে রঙ্গনাটক মঞ্চস্থ করতে যাদের আনা হয়েছে, তারা হল আওয়ামী লীগের সঙ্গ-অনুষঙ্গ। এটা আসলে বাকশালের নতুন ভার্সন, আপডেটেড বাকশাল ২.০ ভার্সন। এই তথাকথিত বাকশাল সঙ্গীদের নিয়ে সুপার-ইমপোজড নির্বাচনের আজব তামাশা করছেন শেখ হাসিনা।”

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৫৫ জন বিএনপি নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, এ সময়ে ১৪টি মামলা করা হয়েছে, যাতে অন্তত ১ হাজার ২৬৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘‘গত দুই মাসে প্রায় ২০ হাজার মুক্তিকামী জনতাকে কারাগারে বন্দি করা হয়েছে। বন্দি নির্যাতনের নেপথ্যে কাহিনি অবর্ণনীয়, এগুলো হচ্ছে চিকিৎসা না দিয়ে হত্যা, অসুস্থ বন্দিকে হাত-পায়ে শিকল পরিয়ে কারা হাসপাতালের ফেলে রাখা, ছোট্ট সেলে ধারণ ক্ষমতার তিনগুণ বন্দিকে গ্যাস চেম্বারের ন্যায় নিগৃহীত করা।

‘‘অত্যাচারে কাশিমপুর কারাগারে ছয় দিনের ব্যবধানে বিএনপির দুই নেতার মৃত্যু হয়েছে।”