মেহেদি চুলের বন্ধু

রাসায়নিক ডাই চুলের রং পরিবর্তন করলেও, মোটেও উপকারী নয়।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 August 2022, 07:19 AM
Updated : 8 August 2022, 07:19 AM

সরাসরি গাছ থেকে নেওয়া মেহেদি পাতা বেটে ব্যবহার করা চুলের জন্য ‍উপকারী।

আগে চুলে রং করার জন্য ব্যবহার করা হত মেহেদি। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাজারে নানান রাসায়নিক ডাই পাওয়া যায়। যা দ্রুত চুলে রং করার পাশাপাশি ক্ষতিও করে থাকে।

ভারতের ‘সুরিয়া ব্রাসিল’য়ের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ক্লেলিয়া সিসিলিয়া অ্যাঞ্জেলোন সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মেহেদির উপকারিতাগুলো পুনরায় অনুধাবন করার বিষয়ে কথা বলেন টাইমসঅফইন্ডিয়ায় ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে।

ঘরোয়া মেহেদি

প্রাচীনকাল থেকেই চুলে রং করতে মেহেদি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। মেহেদি পাতা বেটে তা চুলে মেখে দুই ঘন্টা অপেক্ষা করতে হবে। এরপর সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

এটা কালো চুলে তামাটে রং দেয় যা দেখতে কিছুটা হাইলাইটারের মতো লাগে।

পাকা বা ধূসর চুলে এটা কমলাটে আভা আনে।

ডালিমের খোসা, কফি, চাপাতা ইত্যাদি প্রাকৃতিক উপাদানের সঙ্গে মিশিয়ে ব্যবহার করলে তা দেখতে কালচে বর্ণের লাগে।

মেহেদি ব্যবহার চুলের অকাল পক্কতা কমাতেও সহায়তা করে।

বাজারে মেহেদির প্যাক, ক্রিম ইত্যাদি নানান পণ্য পাওয়া যায়। নিজের সুবিধা মতো পণ্য কিনে চুলে ব্যবহার করা যেতে পারে, তবে খেয়াল রাখতে হবে তা যেন অর্গানিক, প্রাকৃতিক ও ভেষজ হয়ে থাকে। এতে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় ঝুঁকি কম ও প্রাকৃতিক উপকারিতা পাওয়া যাবে।

প্রাকৃতিক কন্ডিশনার

মেহেদি ট্যানিন ও ভিটামিন ই সমৃদ্ধ যা চুলকে প্রাকৃতিকভাবে মসৃণ রাখে। চুলে মেদেহি ব্যবহারের পরে সরিষার তেল মেখে পরদিন শ্যাম্পু করলে কন্ডিশনারের কাজ করবে আর তা দীর্ঘস্থায়ী হবে।

চুলের গোড়া শক্ত করে

মেহেদি চুলের প্রাকৃতিক ‘পিএইচ’য়ের ভারসাম্য বজায় রাখে ও চুলে তেল উৎপাদন করার গ্রন্থিকে শান্ত রাখে।

মেহেদির পাতা প্রোটিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ যা মাথার ত্বকের পিএইচয়ের ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে ফলে গোড়া শক্ত হয় ও চুল পড়া কমে।

খুশকি রোধ

মেহেদি তেল উৎপাদন নিয়ন্ত্রণ করে বলে মাথার ত্বকে খুশকির সম্ভাবনা কমে। প্রাকৃতিক ফাঙ্গাসরোধী ও অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল উপাদান সমৃদ্ধ মেহেদি মাথার ত্বক ভালো রাখে ও জ্বলুনি কমায়। এগুলো খুশকি কমাতে ভূমিকা রাখে।

তৈলাক্ত মাথার ত্বকের জন্য উপকারী

তৈলlক্ত মাথার ত্বক নানান সমস্যার খনি। মেহেদির সঙ্গে মুলতানি মাটি মিশিয়ে তৈলাক্ত মাথার ত্বকে ব্যবহার করে চার থেকে ছয় ঘন্টা অপেক্ষা করলে ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে।

মেহেদি নানান গুণে পূর্ণ হওয়ায় চুলের যত্নে প্রতি তিন থেকে চার সপ্তাহ অন্তর মেহেদি ব্যবহার করা যেতে পারে।

চুলের গোড়া শক্ত রাখা, মাথার ত্বকের সমস্যা কমানো এবং প্রাকৃতিক রং পেতে সহায়তা করে মেহেদি।

ছবির মডেল: আশা। আলোকচিত্র: রাইনা মাহমুদ। বিন্যাস ও পরিকল্পনা: আলি আফজাল নিকোলাস। সৌজন্যে: ত্রয়ী ফটোগ্রাফি স্টুডিও।

আরও পড়ুন:

Also Read: মেহেদির রং গাঢ় করার উপায়

Also Read: মেহেদির রং ওঠাতে

Also Read: চুলে মেহেদি ব্যবহারের উপকারিতা

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক