রবিউল কমলের কিশোর অ্যাডভেঞ্চার ‘শ্মশানবাড়ি রহস্য’

বইটি প্রকাশ করেছে রুমঝুম প্রকাশন। মলাট এঁকেছেন আবু হাসান।

কিডজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 Feb 2024, 03:55 AM
Updated : 1 Feb 2024, 03:55 AM

একদল দুরন্ত কিশোরকে নিয়ে রবিউল কমলের লেখা অ্যাডভেঞ্চার ‘শ্মশানবাড়ি রহস্য’।

বইটি প্রকাশ করেছে রুমঝুম প্রকাশন। মলাট এঁকেছেন আবু হাসান। অমর একুশে বইমেলার ৩৩০ নম্বর স্টলে পাওয়া যাবে বইটি।

শ্মশানবাড়ি রহস্যে কী আছে?একটি স্কুলের নাম আনন্দপুর স্কুল। সেই স্কুলের ছেলে-মেয়েরা খুব আনন্দে পড়ালেখা করে। কিন্তুএকদিন ওদের অঙ্ক স্যার নিখোঁজ হলেন। তারপর একই ক্লাসের আরও দুজন শিক্ষার্থী অন্তু ও রেশমা নিখোঁজ হলো। ওদের কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। নিমিষেই আনন্দপুর স্কুলের আনন্দ হারিয়ে যায়! শুধু কী তাই অনির্দিষ্টকালের জন্য ছুটি দেওয়া হলো।

এদিকে পুলিশও খুঁজে পাচ্ছে না অন্তু ও রেশমাকে। তারপর ওদের ছয় বন্ধু এক হলো। ওরা সিদ্ধান্ত নিলো অন্তু ও রেশমাকে খুঁজে বের করবে। ওরা জানতে পারে অঙ্ক স্যারই ওদের দুই বন্ধুকে অপহরণ করেছে। এটা বিরাট বড় একটি চক্র। এই চক্র অন্তু ও রেশমাকে পাচার করে দিতে পারে। এসব জানার পর আর বসে থাকল না ছয় বন্ধু। একদিন রাতে বেরিয়ে পড়ে শ্মশানবাড়ি অভিযানে। শুরু হলো পদে পদে বিপদ।

প্রথমে ওদের উঠতে হবে অনেক উঁচু একটি পাহাড়ে। রাতের অন্ধকারে সেই পাহাড়ে ওঠা সহজ কথা নয়। পাহাড়ের ওপর আছে গভীর জঙ্গল। সেই জঙ্গলে আছে নানা রকম জন্তু ও জানোয়ার। তারপর ভয়ঙ্কর গুহার ভেতর দিয়ে ওদের শ্মশানাবাড়িতে যেতে হবে।

সেদিন রাত থেকে কখনো হাতির সামনে, কখনো বাঘের সামনে, কখনো গুণ্ডার সামনে পড়তে হবে। একসময় ওদের আটকে ফেলে গুণ্ডারা। সেখান থেকে কীভাবে উদ্ধার হবে এই দুরন্ত কিশোর দল? সেই কথা জানতে হলে বইটি পড়তে হবে।

রবিউল কমল শিশু-কিশোরদের জন্য লিখেন। পেশায় তিনি একজন সাংবাদিক। মাদকবিরোধী প্রচারণার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার। তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৭।