ব্রিটিশ রাজপরিবারের ‘পুরো সত্য’ সামনে আনছেন হ্যারি-মেগান?

‘হ্যারি অ্যান্ড মেগান’ আসছে নেটফ্লিক্সে।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2022, 06:09 PM
Updated : 6 Dec 2022, 06:09 PM

ব্রিটিশ রাজ পরিবারের আলোচিত দুই চরিত্র প্রিন্স হ্যারি ও মেগানকে নিয়ে প্রামাণ্য চিত্র নির্মিত হয়েছে।

এর আগে ‘হ্যারি অ্যান্ড মেগান: এ রয়্যাল রোমান্স’ নামে একটি টিভি ফিকশন বানানো হয় এই দম্পতিকে নিয়ে।

এবার দুই ভলিউমের একটি সিরিজ নির্মাণ করছে নেটফ্লিক্স। এমি অ্যাওয়ার্ডজয়ী পরিচালক লিজ গারবাস এটি নির্মাণ করেছেন। দুইবার একাডেমি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন তিনি।

‘হ্যারি অ্যান্ড মেগান’ নামের এ সিরিজের ট্রেইলার মঙ্গলবার ইউটিউবে মুক্তি দেওয়া হয়।১ মিনিট ১৬ সেকেন্ডের ট্রেইলারে রাজপরিবারের খণ্ড খণ্ড মুহূর্ত তুলে আনা হয়েছে। যাতে প্রিন্স হ্যারিকে বলতে শোনা যায়, “কেউ রাজ পরিবারের পুরো সত্যটা জানে না। আমরা জানি।”

হ্যারিকে আরও বলতে শোনা যায়, “অনেক কিছু ফাঁস করে দেওয়া হয়। গল্প বানানো হয়। আর এসবই নোংরা খেলার অংশ।”

সাধারণ পরিবারের মেগানের রাজ পরিবারে যুক্ত হওয়া এবং তাকে নিয়ে বিভিন্ন ষড়যন্ত্রের পেছনের কথা তুলে আনা হবে বলে ট্রেইলারে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।
রাজ পরিবারের বিভিন্ন ঘটনার পাশাপাশি এক ঝলক দেখা গেছে হ্যারির মা প্রিন্সেস ডায়নাকেও।

এর আগে প্রকাশ করা হয়েছিল ‘হ্যারি অ্যান্ড মেগান’র টিজার। তাতে হ্যারি-মেগান দম্পতিকে প্রশ্ন করা হয়, কেন তারা এই ডকুমেন্টারি বানাতে চান? যার উত্তরে হ্যারি বলেন, “বন্ধ দরজার আড়ালে কী ঘটছে তা কেউ দেখে না।”

হ্যারি আরও বলেছিলেন, “পরিবারকে রক্ষা করার জন্য যা যা করা সম্ভব, আমাকে তাই করতে হয়েছিল।” তখন পাশে থাকা মেগানকে দেখা গিয়েছিল চোখের পানি মুছতে।

মেগানের একটি বক্তব্য দিয়ে টিজার শেষ হয়। তিনি বলেন, “যেহেতু বিষয়টা এতই গুরুত্বপূর্ণ, তখন আমাদের গল্পটা আমাদের কাছ থেকেই শোনা ভালো না?”

২০২০ সালে কমনওয়েলথ ডে সার্ভিসে বড় ভাই উইলিয়াম ও ভাবি কেটের সঙ্গে হ্যারি-মেগান দম্পতির ছবি দেখা গেছে টিজারে। রাজপরিবারের সদস্য হিসেবে জনসম্মুখে তাদের সর্বশেষ উপস্থিতি ছিল সেদিন।

Also Read: রাজকীয় দায়িত্ব, উপাধি ছাড়লেন হ্যারি ও মেগান

Also Read: দ্বিতীয় সন্তানের বাবা-মা হলেন হ্যারি-মেগান

নেটফ্লিক্স জানানো হয়েছে, আগামী বৃহস্পতিবার প্রথম ভলিউম এবং পরবর্তী বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় ভলিউম মুক্তি দেওয়া হবে।  

বিবিসিকে নেটফ্লিক্স জানিয়েছে, বিয়ের পরপর হ্যারি-মেগানের গোপন দিনগুলো; রাজপরিবার থেকে তাদের দূরে সরে যাওয়া বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে ডকুমেন্টারিতে। এতে হ্যারি-মেগান দম্পতির বন্ধু, তাদের পরিবার এবং রাজকীয় ইতিহাসবিদদের বক্তব্যও রয়েছে।

“সিরিজটিতে এক দম্পতির প্রেমের গল্পের চেয়েও বেশি কিছু রয়েছে। এখানে বিশ্ব এবং একে-অপরের সঙ্গে আমরা কেমন আচরণ করি, সেসবের চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।”

২০২০ সালে ব্রিটিশ রাজপরিবারের দায়িত্ব থেকে সরে গিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী মেগান মার্কলকে নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন হেনরি চার্লি আলবার্ট ডেভিড; যিনি প্রিন্স হ্যারি নামে বিশ্বব্যাপী পরিচিত।

পরিবার থেকে বের হয়ে গিয়ে বেশ কয়েকবার বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান।  

মার্কিন অভিনেত্রী মেগানের সঙ্গে ব্রিটিশ রাজপুত্র হ্যারির প্রেম ও বিয়ে অনেক আলোচনার জন্ম দিয়েছিল। রাজপরিবারে মেগানের অভিজ্ঞতা সুখকর হয়নি। রাজপরিবার থেকে হ্যারি ও মেগানের দূরত্ব তৈরি তারই প্রমাণ।

রাজপরিবারে হ্যারির মা প্রিন্সেস ডায়নারও অভিজ্ঞতা ভালো ছিল না। চার্লসের সঙ্গে তার সম্পর্ক শেষ হয়েছিল তিক্ততার মধ্য দিয়ে।

আর তাই শুধু হ্যারি ও মেগান নয়, প্রামাণ্যচিত্রে হ্যারির মা প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়ানার জীবনের অংশও তুলে আনার ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে ট্রেইলারে।  

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক