আরেকটি শতকে রবীন্দ্রর রেকর্ড, নিউ জিল্যান্ডের ৪০১

বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো চারশ ছাড়াল নিউ জিল্যান্ড।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Nov 2023, 09:57 AM
Updated : 4 Nov 2023, 09:57 AM

টপ-অর্ডারে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাওয়ার পর থেকে প্রতিনিয়ত যেন নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন রাচিন রবীন্দ্র। একের পর এক উপহার দিচ্ছেন দারুণ সব ইনিংস। সবশেষ পাকিস্তানের বিপক্ষে সেঞ্চুরিতে গড়েছেন নতুন রেকর্ড। সঙ্গে ফেরার ম্যাচে কেন উইলিয়ামসনের নব্বই ছোঁয়া ইনিংসে চারশ পেরিয়েছে নিউ জিল্যান্ড। 

বেঙ্গালোরের এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে ৬ উইকেটে নিউ জিল্যান্ডের সংগ্রহ ৪০১ রান। বৈশ্বিক এই টুর্নামেন্টে এবারই প্রথম চারশ স্পর্শ করল তারা। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে কোনো দলের চারশও এই প্রথম।

চলতি আসরে শ্রীলঙ্কার করা ৩৪৪ রান টপকে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ড গড়েছিল পাকিস্তান। এবার টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে নিজেদের রেকর্ড নতুন করে লেখার কঠিন চ্যালেঞ্জ জিততে হবে বাবর আজমের দলকে।

বিশ্বকাপে নিউ জিল্যান্ডের আগের সর্বোচ্চ ২০১৫ সালে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে করা ৩৯৩ রান। প্রায় ৮ বছর পর সেটি টপকে যাওয়ায় বড় অবদান রবীন্দ্রর। দলকে দৃঢ় ভিত গড়ে দেওয়ার পথে তিনি খেলেছেন ১০৮ রানের ইনিংস। স্রেফ ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি ছুঁতে পারেননি উইলিয়ামসন। 

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচেই ঝড়ো সেঞ্চুরির পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও শত রান করেন রবীন্দ্র। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৫ চার ও ১ ছক্কায় ৯৪ বলের ইনিংসে নিউ জিল্যান্ডের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে এক আসরে তিন সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন ২৩ বছর বয়সী অলরাউন্ডার। 

১৯৭৫ সালে গ্লেন টার্নার, ২০১৫ সালে মার্টিন গাপটিল ও গত আসরে কেন উইলিয়ামসন করেন দুটি করে সেঞ্চুরি। নিজের প্রথম বিশ্বকাপেই তাদের ছাড়িয়ে গেলেন রবীন্দ্র। বিশ্বকাপে অভিষেক আসরে তিন সেঞ্চুরি করা প্রথম ব্যাটসম্যানও তিনি। 

তিন সেঞ্চুরির সঙ্গে দুটি পঞ্চাশ ছোঁয়া ইনিংসে এরই মধ্যে ৫২৩ রান করেছেন রবীন্দ্র। বিশ্বকাপে অভিষেক আসরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড থেকে স্রেফ ৯ রান দূরে তিনি। গত আসরে প্রথমবার খেলতে নেমে দুটি করে ফিফটি-সেঞ্চুরিতে ৫৩২ রান করেছিলেন জনি বেয়ারস্টো। 

রবীন্দ্রর দারুণ অর্জনের ম্যাচে সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগান উইলিয়ামসনও। হাতের চোট কাটিয়ে চার ম্যাচ পর ফিরে তিনি খেলেন ১০ চার ও ২ ছক্কায় ৭৯ বলে ৯৫ রানের ইনিংস। চলতি আসরে দুই ম্যাচ খেলে দুটিতেই ফিফটি করলেন কিউই অধিনায়ক।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নিউ জিল্যান্ড উদ্বোধনী জুটিতে পায় ৬৮ রান। ডেভন কনওয়ে ৩৫ রান করে ফেরার পর দ্বিতীয় উইকেটে ১৮০ রান যোগ করেন রবীন্দ্র, উইলিয়ামসন। আড়াইশর আগে ফেরেন উইলিয়ামসন।

পরের ওভারে মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়রের বলে ছক্কা মারতে গিয়ে ক্যাচ আউট হন রবীন্দ্র। ড্রেসিং রুমে ফেরার সময় গ্যালারির দর্শকরা দাঁড়িয়ে অভ্যর্থনা জানান রেকর্ড গড়া ইনিংস খেলা তরুণ বাঁহাতি ওপেনারকে। 

এরপর ড্যারেল মিচেল (১৮ বলে ২৯), মার্ক চ্যাপম্যান (২৭ বলে ৩৯), গ্লেন ফিলিপস (২৫ বলে ৪১), মিচেল স্যান্টনারদের (১৭ বলে ২৬*) ছোট তবে গুরুত্বপূর্ণ ইনিংসে চারশ পেরিয়ে যায় নিউ জিল্যান্ড। 

পুরো ইনিংসে ৪৬টি চার মারেন নিউ জিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। বিশ্বকাপে এক ইনিংসে এটিই সর্বোচ্চ চারের রেকর্ড। চলতি আসরেই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৪৫টি চার মেরেছিল দক্ষিণ আফ্রিকার।

পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে ৩ উইকেট নেন ওয়াসিম। ১০ ওভারে ৯০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকেন শাহিন শাহ আফ্রিদি। ৫২ ম্যাচের ক্যারিয়ারে এটিই তার সবচেয়ে খরুচে বোলিং। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে খরুচে বোলিংও এটি।