তাইজুলের বোলিংয়ে হেরাথের ‘ছায়া’

বোলিংয়ের একটা জায়গায় লঙ্কান স্পিন গ্রেটের সঙ্গে বাংলাদেশের অভিজ্ঞ স্পিনারের মিল দেখতে পান বাংলাদেশের কোচ চান্দিকা হাথুরুসিংহে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Dec 2023, 07:02 AM
Updated : 5 Dec 2023, 07:02 AM

সিলেট টেস্টে শেষ হয়েছে বিসিবির সঙ্গে রাঙ্গানা হেরাথের প্রায় আড়াই বছরের সম্পর্ক। আপাতত বাংলাদেশ দলের সঙ্গে দেখা যাবে না তাকে। তবে তিনি না থাকলেও আছে তার ছায়া। তাইজুল ইসলাম তো আছেন!

এটুকু দেখে চমকে উঠতে পারেন অনেকে। ৪৩৩ টেস্ট উইকেট শিকারি স্পিন বোলিং গ্রেটের সঙ্গে তাইজুলের তুলনায় ভ্রু কুঁচকে ওঠাও অস্বাভাবিক নয়। তবে এই ছায়া যিনি দেখতে পাচ্ছেন, তার কথাকে বাড়তি গুরুত্ব দিতেই হবে। চান্দিকা হাথুরুসিংহে তো দুইজনকেই দেখেছেন খুব কাছ থেকে। বোলিংয়ের একটি জায়গায় হেরাথের সঙ্গে তাইজুলের মিল দেখতে পান বাংলাদেশ কোচ।

নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের জয়ের নায়ক তাইজুল। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটের পর দ্বিতীয়বারে ৬ উইকেট নিয়েছেন তিনি। বার্তা দিয়েছেন আড়াল থেকে আলোর পথে যাত্রার। বোলিং আক্রমণের নেতা হিসেবে ম্যাচে পূর্ণ কর্তৃত্ব দেখিয়েছেন ৩১ বছর বয়সী স্পিনার।

টেস্ট ক্রিকেটে তাইজুলের এমন পারফরম্যান্স নতুন নয়। অভিষেকের পর থেকেই সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ধারাবাহিকভাবে ভালো করছেন তিনি। কিন্তু সেভাবে তার ওপর পড়েনি মনোযোগের আলো। কখনও সাকিব আল হাসান, আবার কখনও মেহেদী হাসান মিরাজের আড়ালে পড়েছেন বাঁহাতি এই স্পিনার।

সিলেট টেস্ট ছিল উজ্জ্বল ব্যতিক্রম। সাকিবের অনুপস্থিতিতে যে দায়িত্ব পড়েছে কাঁধে, তা পুরোটাই দারুণভাবে পালন করেছেন তাইজুল। দুই ইনিংসেই তিনি ফিরিয়েছেন প্রতিপক্ষের সেরা ব্যাটসম্যান কেন উইলিয়ামসনকে। ম্যাচের যে কোনো পর্যায়ে তার হাতে বল দিয়ে নির্ভার থাকতে পেরেছেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত।

ওই ম্যাচে তাইজুলের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ বাংলাদেশের প্রধান কোচও। ঢাকায় দ্বিতীয় টেস্ট শুরুর আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে তাইজুলের বোলিংয়ে হেরাথের প্রভাবের কথা বললেন হাথুরুসিংহে।

“সে (তাইজুল) খুবই ধারাবাহিক। এই ম্যাচে (সিলেটে) আমি তার পরিপক্বতা দেখেছি। তার সঙ্গে রাঙ্গানা হেরাথ অনেক ট্যাকটিক্যাল কাজ করেছে। সে যেভাবে ব্যাটসম্যানদের সেট-আপ করে, হেরাথের সঙ্গে অনেকটা মিল আছে। আমার মনে হয়, সে লম্বা সময় বাংলাদেশের হয়ে খেলবে।”

ধারাবাহিক পারফরম্যান্সের পরও তাইজুল যে দেশের ক্রিকেটে আগ্রহ বা মনোযোগের কেন্দ্রে থাকেন না, তা জানেন হাথুরুসিংহেও। কারণটাও তিনি বোঝেন। তবে দলের কাছ থেকে তাইজুল পূর্ণ মনোযোগই পান বলে জানালেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ।

“যখন সে ভালো করে, তাকে নিয়ে আপনাদের (সংবাদমাধ্যম) কথা বলতেই হবে। তাকে নিয়ে আমরা নিজেদের মধ্যে অনেক কথা বলি। নিজের অনুশীলনের ব্যাপারে সে খুবই স্বচ্ছ ধারণা রাখে এবং যা করতে চায় সুনির্দিষ্টভাবে করে। মানসিকভাবে খুবই শক্ত সে।”

“তার ওপর সাধারণত সেভাবে আলো পড়ে না, কারণ আমাদের আরেকজন বিশ্ব মানের ক্রিকেটার আছে, সাকিব (আল হাসান)। বেশিরভাগ ম্যাচে তাকে পার্শ্ব চরিত্র হিসেবে খেলতে হয়েছে। তবে তার রেকর্ড অসাধারণ। প্রায় দুইশ উইকেট তার।”