চোটের থাবায় বছর শেষ জেমিসনের

আরও এক দফা চোটের কারণে প্রায় এক বছরের জন্য মাঠের বাইরে থাকতে হবে নিউ জিল্যান্ডের এই পেসারকে।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Feb 2024, 04:32 AM
Updated : 17 Feb 2024, 04:32 AM

নতুন বছরের মাত্রই দ্বিতীয় মাস চলে এখন। তবে কাইল জেমিসনের জন্য এখনই বলা যায় বছরের সমাপ্তি। পিঠে ‘স্ট্রেস ফ্র্যাকচার’ ধরা পড়েছে নিউ জিল্যান্ডের এই পেসারের। ২৯ বছর বয়সী পেসারকে মাঠের বাইরে থাকতে হবে প্রায় এক বছর। 

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সদ্য সমাপ্ত টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে ৬ উইকেট নেওয়ার পথে পিঠে ব্যথা অনুভব করেন জেমিসন। দ্বিতীয় টেস্টে তিনি খেলতে পারেননি। পরে স্ক্যান করিয়ে ধরা পড়ে এই চোট। 

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই অবশ্য চোটাঘাত তার নামের প্রায় সমার্থক হয়ে উঠেছে। অনেক আশা জাগিয়ে শুরুর পরও সম্ভাবনাময় ক্যারিয়ার বারবার বাধাগ্রস্ত হয়েছে চোটের কারণে। গত দেড় বছরে তিনি স্রেফ ৩টি টেস্ট, ৫টি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলতে পেরেছেন। মাঠের ভেতরের চেয়ে বাইরের বেশি থাকতে হচ্ছে তাকে। এবার শুরু হলো আরেকটি দীর্ঘ লড়াই।

ফাস্ট বোলারদের জন্য ‘স্ট্রেস ফ্র্যাকচার’ সাধারণত খুবই বাজে ধরনের চোট। কখনও কখনও এটা ক্যারিয়ারঘাতীও হয়ে উঠতে পারে। 

পিঠের যে অংশের চোটের কারণে গত বছর অস্ত্রোপচার করাতে হয়েছে জেমিসনকে, এবারের চোটও সেই অংশেই। তবে এটা একদমই নতুন চোট। একটা স্বস্তি আছে, এবার তাকে অস্ত্রোপচার করাতে হচ্ছে না। 

তবে পুনবার্সনের যে দীর্ঘ শারীরিক ও মানসিক ধকল, সেই ক্লান্তিকর প্রক্রিয়ায় আবার যেতে হচ্ছে। বিশেষ করে, মানসিক লড়াইকেই মূল চ্যালেঞ্জ বলছেন ৬ ফুট ৮ ইঞ্চি লম্বা এই পেসার।

“আমি জানি যে চোটাঘাত একজন ক্রিকেটারের জীবনের অংশ এবং আশা করি, আমার যে বয়স, খেলোয়াড়ি জীবনের আরও অনেক বছর বাকি আছে আমার। কীভাবে এগোব, সেটির ছক করা হয়েছে। তবে জানি যে, যে প্রতিবন্ধকতাগুলো টপকাতে হবে, সেখানে মানসিক ও আবেগের দিকটাই মূল, শারীরিক লড়াইটাই সবচেয়ে সহজ।” 

“মাসের পর মাস লড়াইয়ে পর দেখা যাবে, মাত্রই অর্ধেক পথ শেষ হয়েছে এবং আরও অনেকটা সময় বাকি আছে। এটা কঠিন, কারণ এই প্রক্রিয়ায় কেউই বারবার যেতে চায় না। প্রতিবারই মনে হয়, আশা করি এবারই শেষ। কিন্তু আমার উচ্চতা ৬ ফুট ৮ ইঞ্চি, আমি ফাস্ট বোলার। কাজেই এসব আমার পথচলারই অংশ।” 

জেমিসনের বদলে সুযোগ পেয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে অভিষেকে ৯ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়েন উইলিয়াম ও’রোক। সামনে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজেও ২২ বছর বয়সী এই পেসারকে দেখা যাবে নিশ্চিতভাবে।