খাওয়াজার হতাশার দিনে ব্যাট-বলের দারুণ লড়াই

আট রানেই নেই দুই উইকেট। বিপাকে পড়া দলকে পথে ফেরালেন উসমান খাওয়াজা ও স্টিভেন স্মিথ। সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে আরও একবার আক্ষেপ নিয়ে ফিরলেন খাওয়াজা। স্মিথ থামলেন পঞ্চাশ পেরিয়ে। শেষ সেশনে অস্ট্রেলিয়ার তিন উইকেট তুলে নিয়ে লড়াইয়ে ফিরল পাকিস্তান।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 March 2022, 03:07 PM
Updated : 21 March 2022, 03:07 PM

সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম দিন ৫ উইকেটে ২৩২ রান করেছে অস্ট্রেলিয়া। ২০ রান নিয়ে খেলছেন ক্যামেরন গ্রিন, ৮ রানে অ্যালেক্স কেয়ারি।

ইনিংস শুরু করতে নেমে খাওয়াজা করেন এক ছক্কা ও ৯ চারে ৯১ রান। ক্যারিয়ারে এই নিয়ে চতুর্থবার নব্বইয়ের ঘরে আউট হলেন তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে চলতি সিরিজে দ্বিতীয়বার।

খাওয়াজার সঙ্গে ১৩৮ রানের জুটি গড়া স্মিথ ফেরেন ৬ চারে ৫৯ রান করে। টানা তিন ইনিংসে পঞ্চাশ করলেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে ২০০৯ সালের পর টেস্ট ফেরার ম্যাচে উইকেটে আছে ঘাসের ছোঁয়া। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই জোড়া ধাক্কা খায় অস্ট্রেলিয়া; তিন বলের মধ্যে ফিরে যান ডেভিড ওয়ার্নার ও মার্নাস লাবুশেন।

শাহিন শাহ আফ্রিদির ভেতরে ঢোকা দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে এলবিডব্লিউ হন ওয়ার্নার। অফ স্টাম্পের বাইরের বল তাড়া করে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন লাবুশেন। তিন ইনিংসের মধ্যে দুইবার শূন্য রানে ফিরলেন টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান।

খাওয়াজা-স্মিথকেও দ্রুত ফেরানোর সুযোগ এসেছিল। নুমান আলির পরপর দুই বলে বেঁচে যান তারা। ১২ রানে খাওয়াজার ক্যাচ স্লিপে জমাতে পারেননি বাবর আজম। স্মিথের ফিরতি ক্যাচ নিতে পারেননি বোলার।

২ উইকেটে ৭০ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় সেশনেও হারায়নি আর কোনো উইকেট।

সাবধানী ব্যাটিংয়ে খাওয়াজা ষোড়শ টেস্ট ফিফটিতে পা রাখেন ১০৫ বলে। স্মিথ ছিলেন আরও সতর্ক, তার ৩৬তম ফিফটি আসে ১৫৪ বলে।

চা-বিরতির পর তৃতীয় ওভারেই নাসিম শাহের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ৮ হাজার টেস্ট রানের দুয়ারে থাকা স্মিথ। লাল বলে তার রান সাত হাজার ৯৯৩। 

ট্রাভিস হেড দুই অঙ্কে যাওয়ার আগেই তাকে ফেরানোর সুযোগ পান সাজিদ খান। কিন্তু ফিরতি ক্যাচ হাতে জমাতে পারেননি এই অফ স্পিনার। জীবন পেয়েও অবশ্য কাজে লাগাতে পারেননি হেড। নাসিমের দারুণ ডেলিভারিতে কট বিহাইন্ড হন ৪ চারে ২৬ রান করা এই ব্যাটসম্যান।

মাঝে দলকে বড় সাফল্য এনে দেন সাজিদই। তার বলে স্লিপে বাবরের অসাধারণ রিফেক্স ক্যাচে বিদায় নেন খাওয়াজা। প্রথম টেস্টে একমাত্র ইনিংসে ৯৭ রানে ফেরার পর করাচি টেস্টে দুই ইনিংসে করেন ১৬০ ও অপরাজিত ৪৪। সব মিলিয়ে জন্মভুমিতে প্রথম সফরটা তার দারুণ কাটছে।

দিনের বাকি ৭ ওভার নিরাপদে কাটিয়ে দেন গ্রিন ও কেয়ারি। দলকে কতদূর নিয়ে যেতে পারেন তারা, এটাই এখন দেখার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ৮৮ ওভারে ২৩২/৫ (ওয়ার্নার ৭, খাওয়াজা ৯১, লাবুশেন ০, স্মিথ ৫৯, হেড ২৬, গ্রিন ২০*, কেয়ারি ৮*; আফ্রিদি ১৫-৩-৩৯-২, হাসান ১৪-৫-২৮-০, নাসিম ১৯-৯-৩-২, নুমান ১৫-২-৫১-০, সাজিদ ২৫-৪-৬৫-১)

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক