প্রসিধের আগুনে পুড়ল উইন্ডিজের ব্যাটিং

বল হাতে নিয়েই জ্বলে উঠলেন প্রসিধ কৃষ্ণা। নিজের প্রথম দুই ওভারে ফেরালেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের টপ অর্ডারের দুই ব্যাটসম্যানকে। তরুণ পেসার পরে ছোবল দিলেন মিডল অর্ডারেও। ভালো করলেন ভারতের অন্য বোলাররাও। তাতে আড়াইশর কম পুঁজি নিয়েও দারুণ জয়ে সিরিজ নিশ্চিত করল রোহিত শর্মার দল।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Feb 2022, 04:27 PM
Updated : 9 Feb 2022, 05:02 PM

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বুধবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৪৪ রানে হারিয়েছে ভারত। ২৩৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ১৯৩ রানে গুটিয়ে গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

সব মিলিয়ে টানা পাঁচ ম‍্যাচে পুরো ৫০ ওভার খেলতে ব‍্যর্থ হল ক‍্যারিবিয়ানরা। তিন ম‍্যাচের সিরিজে পিছিয়ে গেল ২-০ ব‍্যবধানে।

আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামের উইকেটে এদিনও ছিল অসম বাউন্স, পেসারদের জন্য সহায়তা। তবে চোয়ালবদ্ধ প্রতিজ্ঞতা নিয়ে ব‍্যাট করলে এখানেও রান করা সম্ভব ছিল।

এই উইকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব‍্যাটসম‍্যানদের কঠিন পরীক্ষায় ফেললেন প্রসিধ। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে স্রেফ ১২ রানে নিলেন ৪ উইকেট, জিতলেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। ডানহাতি এই পেসারের আগের সেরাও ছিল চার উইকেট, তবে সেবার রান দিয়েছিলেন ৫৪।

বোলারদের হাত ধরে ম্যাচের শুরুটা ভালো করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টস জিতে ফিল্ডিং নিয়ে দ্রুত বিদায় করে স্বাগতিকদের টপ অর্ডারের তিন ব‍্যাটসম‍্যানকে।

গত ম্যাচের মতো এবার আর ভারতকে ভালো শুরু এনে দিতে পারেননি রোহিত শর্মা। অধিনায়ক বিদায় নেন তৃতীয় ওভারেই। কেমার রোচের বাড়তি বাউন্সে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন রোহিত।

বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে ওপেন করে আসা রিশাভ পান্ত  আন্তর্জাতিক আঙ্গিনায় প্রথমবারের মত এই পজিশনে খেলার সুযোগ পেয়ে করতে পারেননি তেমন কিছু। টিকতে পারেননি বিরাট কোহলিও। চোটের কারণে এই ম্যাচে কাইরন পোলার্ডের অনুপস্থিতে সুযোগ পাওয়া ওডিন স্মিথের এক ওভারেই ফেরেন দুই জন।

৪৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া ভারতকে পথে ফেরান লোকেশ রাহুল ও সূর্যকুমার যাদব। তাদের দুইজনের ৯০ রানের জুটি স্বাগতিকদের নিয়ে যায় ভালো অবস্থানে।

পারিবারিক কারণে প্রথম ওয়ানডে না খেলা রাহুল দলে ফিরে শুরুতে ছন্দের খোঁজে ছিলেন। প্রথম ২৩ বলে করেন কেবল ৭ রান। এর মাঝে ৪ রানে পান জীবনও, রোচের বলে উইকেটের পেছনে তার সহজ ক্যাচ ছাড়েন শেই হোপ।

আকিল হোসেনকে ছক্কায় উড়িয়ে ডানা মেলে দেন রাহুল।দারুণ সব শটে বাড়াতে থাকেন দলের রান। দ্রুত পৌঁছে যান ফিফটির কাছে। কিন্তু ৪৮ বলে ২ ছক্কা ও চারটি চারে ৪৯ রান করে বিদায় নেন রান আউট হয়ে।

৭০ বলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটিতে পৌঁছান সূর্যকুমার। এরপর তিনিও ইনিংস বড় করতে পারেননি। বাঁহাতি স্পিনার ফ্যাবিয়ান অ্যালেনকে সুইপ করে ধরা পড়েন শর্ট ফাইন লেগে। শেষ হয় ৫ চারে গড়া ৬৪ রানের ইনিংস।

ওয়াশিংটন সুন্দর উইকেটে থিতু হয়ে ফেরেন ৪১ বলে ২৪ রান করে। শার্দুল ঠাকুর, মোহাম্মদ সিরাজ যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। শেষ দিকে আউট হওয়া দিপক হুডা ২ চারে করেন ২৫।

ভারতকে আড়াইশর আগে আটকে দিয়ে রান তাড়ার শুরুটা দেখেশুনেই করেন হোপ ও ব্র্যান্ডন কিং। সিরাজ ও শার্দুলের সামলে এগিয়ে যাচ্ছিলেন তারা। কিন্তু প্রসিধের এক স্পেলেই বদলে যায় ম্যাচের চিত্র।

অষ্টম ওভারে আক্রমণে এসে তৃতীয় বলেই কিংকে সাজঘরে পাঠান প্রসিধ। বাড়তি বাউন্সে ব্যাট চালিয়ে দিয়ে পান্তের গ্লাভসে জমা পড়েন কিং। ভাঙ্গে ৩২ রানের উদ্বোধনী জুটি।

পরের ওভারের প্রথম বলেই শিকার ধরেন প্রসিধ। কট বিহাইন্ডের সফল রিভিউয়ে পান ড্যারেন ব্রাভোর উইকেট। ৪ ওভারে ২ মেডেনসহ স্রেফ ৩ রানে ২ উইকেট নিয়ে প্রসিধ শেষ করেন প্রথম স্পেল।

আক্রমণ থেকে প্রসিধ সরলেও ক‍্যারিবিয়ানদেের বিপদ কাটেনি। থিতু হওয়ার চেষ্টায় থাকা হোপকে ফিরিয়ে দেন লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্র চেহেল।

এরপর আবারও দৃশ্যপটে আসেন প্রসিধ। পোলার্ডের অনুপস্থিতিতে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া নিকোলাস পুরানকে দুই অঙ্কে যেতে দেননি তিনি। আগের ম্যাচে ফিফটি করা জেসন হোল্ডারকে এবার আর টিকতে দেননি শার্দুল।

এক প্রান্ত অনেকটা সময় আগলে রাখেন শামারা ব্রুকস। অন‍্য প্রান্তে তাকে তেমন একটা সঙ্গ দিতে পারেননি কেউই। ব্রুকসকে ফিফটির আগে থামিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম উইকেটের স্বাদ নেন অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার হুডা। দুটি করে ছক্কা-চারে দলের সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন ব্রুকস।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে যখন ১১৭ রানে ৬ উইেকট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টানেন আকিল ও অ্যালেন। তাদের ৪২ রানের জুটিতে দেড়শ পার করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ক্যারিবিয়ানদের নিভু নিভু আশার বাতি এই দুইজনের ব্যাটে জ্বলছিল। অ্যালেনকে ফিরিয়ে সেটা প্রায় নিভিয়ে দেন সিরাজ। পরের ওভারেই শার্দুলের শিকার ৩ চারে ৩৪ রান করা আকিল। ক‍্যারিবিয়ানদের দুই ব‍্যাটসম‍্যানই ক্যাচ দেন কিপারের হাতে।

দারুণ বোলিংয়ের পর ব্যাট হাতেও নিজেকে মেলে ধরার চেষ্টা করেন স্মিথ। শেষ দিকে দুই ছক্কা ও এক চারে ২০ বলে ২৪ রানের ইনিংসে ব‍্যবধান কিছুটা কমান তিনি।

আগামী শুক্রবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ৫০ ওভারে ২৩৭/৯ (রোহিত ৯, পান্ত ১৮, কোহলি ১৮, রাহুল ৪৯, সূর্যকুমার ৬৪, ওয়াশিংটন ২৪, হুডা ২৯, শার্দুল ৮, সিরাজ ৩, চেহেল ১১*, প্রসিধ ০*; রোচ ৮-০-৪২-১, জোসেফ ১০-০-৩৬-২, স্মিথ ৭-০-২৯-২, হোল্ডার ৯-২-৩৭-১, আকিল ৬-০-৩৯-১, অ্যালেন ১০-০-৫০-১)

ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ৪৬ ওভারে ১৯৩ (হোপ ২৭, কিং ১৮, ব্রাভো ১, ব্রুকস ৪৪, পুরান ৯, হোল্ডার ২, আকিল ৩৪, অ্যালেন ১৩, স্মিথ ২৪, জোসেফ ৭, রোচ ০; সিরাজ ৯-১-৩৮-১, শার্দুল ৯-১-৪১-২, প্রসিধ ৯-৩-১২-৪, চেহেল ১০-০-৪৫-১, ওয়াশিংটন ৫-০-২৮-১, হুডা ৪-০-২৪-১)

ফল: ৪৪ রানে জয়ী ভারত

সিরিজ: তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে স্বাগতিকরা

ম্যান অব দা ম্যাচ: প্রসিধ কৃষ্ণা

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক