১৩ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিয়ে শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের বিপরীতমুখী অব্স্থানে কয়েকদিন ধরে থমথমে অবস্থার মধ্যে ক্যাম্পাস ছাড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 April 2024, 12:15 PM
Updated : 3 April 2024, 12:15 PM

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) ছাত্র রাজনীতি নিয়ে আন্দোলন কর্মসূচি ঘিরে থমথমে পরিস্থিতির মধ্যেই লম্বা ছুটিতে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

রোজা, ঈদুল ফিতর ও পহেলা বৈশাখের ছুটি মিলিয়ে ৪ এপ্রিল থেকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত ১৩ দিনের অবকাশ পাচ্ছেন তারা।

গত ৩০ মার্চ এক বিজ্ঞপ্তিতে এই ছুটি ঘোষণা করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। শিক্ষার্থীরা আগেই ছুটিতে গেলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের দাপ্তরিক ছুটি থাকবে ৯-১৪ এপ্রিল। ঈদের পর আগামী ১৭ এপ্রিল ফের একাডেমিক কার্যক্রম চালু হবে বুয়েটে।

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিয়ে শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের বিপরীতমুখী অব্স্থানে কয়েকদিন ধরে থমথমে অবস্থার মধ্যে ক্যাম্পাস ছাড়ছেন শিক্ষার্থীরা।

ছাত্র রাজনীতিমুক্ত ক্যাম্পাসের দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে বুধবারও পরীক্ষা বর্জন করেন তারা। ঈদের আগে এদিন শেষ পরীক্ষার তারিখ ছিল। এর আগে গত ৩০ ও ৩১ মার্চ দুটি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীরা অংশ নেননি।

বুধবার সকাল থেকে বুয়েট ক্যাম্পাস ঘুরে শিক্ষার্থীদের আনাগোনা দেখা যায়নি। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের দাপ্তরিক কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবেই চলতে দেখা যায়।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ফোনে কথা বলে জানা যায়, বুধবার বুয়েটের ২০১৮ ব্যাচের একটি টার্ম ফাইনাল পরীক্ষা ছিল। কিন্তু আন্দোলনের অংশ হিসেবে তারা ওই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেননি। ঈদের আগে আর কোনো ক্লাস বা পরীক্ষা না থাকায় শিক্ষার্থীদের অনেকে বাড়ি চলে গেছেন।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর বুয়েটের শেরেবাংলা হলের আবাসিক ছাত্র আবরার ফাহাদকে রাতে ছাত্রলীগের এক নেতার কক্ষে নিয়ে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয়। সেই ঘটনায় ক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে বুয়েট। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বুয়েটে নিষিদ্ধ হয় ছাত্র রাজনীতি।

এরপর থেকে গত সাড়ে চার বছর প্রকৌশল শিক্ষার এই বিদ্যাপীঠে ছাত্র সংগঠনগুলোর রাজনৈতিক কার্যক্রম নিষিদ্ধই ছিল। এর মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতিসহ একদল নেতাকর্মী বুয়েট ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলে নতুন করে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা।

ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ নেতাদের সমাগম ঘটানোর কারণ হিসেবে পুরকৌশল বিভাগের ২১তম ব্যাচের ছাত্র ও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ইমতিয়াজ হোসেন রাহিমের হলের সিট বাতিল করা হয়। এরপর বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি ফেরানোর দাবিতে পাল্টা কর্মসূচি দেয় ছাত্রলীগ।

বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনার মধ্যে সোমবার বুয়েটে ছাত্র রাজনীতিতে নিষেধাজ্ঞার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বহিষ্কৃত শিক্ষার্থী ইমতিয়াজ হোসেন রাহিমের দায়ের করা রিটের শুনানির পর হাই কোর্ট বুয়েটে রাজনীতি নিষেধাজ্ঞার আদেশ স্থগিত করে।

তবে ছাত্র রাজনীতি বন্ধে আইনি লড়াইয়ের কথাও জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও কামনা করেন তারা।

আরো পড়ুন-

Also Read: বুয়েটকে ‘রাজনীতিমুক্ত’ রাখতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে শিক্ষার্থীদের আর্জি

Also Read: আনাগোনা নেই শিক্ষার্থীদের, থমথমে বুয়েট

Also Read: আদালতের আদেশ ‘শিরোধার্য’: বুয়েট উপাচার্য

Also Read: বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির বাধা কাটল

Also Read: শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা চাইলে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির অনুমতি: উপাচার্য

Also Read: বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে রোববার ছাত্রলীগের সমাবেশ

Also Read: 'বুয়েটে হিযবুত তাহরীর, ছাত্রশিবির স্বার্থ হাসিল করছে'

Also Read: নেতাকর্মীদের নিয়ে এবার প্রকাশ্যে বুয়েটে ঢুকল ছাত্রলীগ

Also Read: বুয়েটে জঙ্গিবাদীরা তৎপরতা চালাচ্ছে কি না, খতিয়ে দেখতে বললেন শিক্ষামন্ত্রী

Also Read: বুয়েটে ছাত্রলীগের প্রবেশ: এক শিক্ষার্থীর সিট বাতিল

Also Read: বুয়েটে গভীররাতে ছাত্রলীগের প্রবেশ, শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ