৭ ঘণ্টায় ২৭.১৫% ভোট

বাতিল হয়েছে বিভিন্ন জেলার সাত কেন্দ্রের ভোট।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Jan 2024, 09:47 AM
Updated : 7 Jan 2024, 09:47 AM

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণের প্রথম সাত ঘণ্টায় সারা দেশে ২৭ দশমিক ১ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

রোববার সকাল ৮টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত ভোট পড়ার এই হিসাব নির্বাচন ভবনে ব্রিফিংয়ে তুলে ধরেন ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম।

তিনি জানান, এই সময়ের মধ্যে ঢাকা বিভাগের ভোট পড়েছে ২৫%, চট্টগ্রাম বিভাগে ২৭%, খুলনা বিভাগে ৩২%, সিলেট বিভাগে ২২%, ময়মনসিংহ বিভাগে ২৯%, রাজশাহী বিভাগে ২৬%, রংপুর বিভাগে ২৬% এবং বরিশাল বিভাগে ৩১% ভোট পড়েছে।

ইসি সচিব বলেন, "দুয়েকটা উপজেলার কেন্দ্রের তথ্য হালনাগাদ নাও হতে পারে, সে কারণে এই সংখ্যাটা আরও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।"

এর আগে ভোটের প্রথম চার ঘণ্টায় ১৮ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট পড়ার তথ্য দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশনার মো. আনিছুর রহমান অবশ্য আশা প্রকাশ করেছিলেন, শেষ পর্যন্ত ভোটের হার ৫০ শতাংশ ছাড়াতে পারে।

ঢাকা ১০ আসনের সিটি কলেজ কেন্দ্রে নিজের ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেছিলেন, “শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ৫০ শতাংশের বেশি ভোট পড়বে বলে আশা করি।”

বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো ভোট বর্জনের মধ্যে দেশের ৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৯ আসনের ভোট হচ্ছে রোববার। দেশের ৪২ হাজার ২৪টি কেন্দ্রে ব্যালট পেপারে সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

এবার নিজেদের পছন্দের প্রার্থীকে বাছাই করতে ১১ কোটি ৯৩ লাখের বেশি ভোটার রায় দিচ্ছেন। মোট ১৯৬৯ প্রার্থীর মধ্যে ৪৩৭ জন লড়ছেন স্বতন্ত্র হয়ে। দলীয় প্রার্থী রয়েছেন ১ হাজার ৫৩২ জন।

ভোট গ্রহণকালে বেলা ৩টা পর্যন্ত সাতটি কেন্দ্র বাতিল করা হয়েছে বলে জানান ইসি সচিব জাহাংগীর। তবে কোন কোন কেন্দ্র বাতিল করা হয়েছে তিনি জানাননি।

ভোট বাতিলের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, "জাল ভোট পড়েছে বেশি পরিমাণে, ভাঙচুর হয়েছে।"

জাল ভোট দেওয়ায় বা সে কাজে সহায়তা করায় এদিন ১৫ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইসি সচিব।

তিনি বলেন, দণ্ডিতদের মধ্যে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারও আছেন।

ভোটকেন্দ্রে নাশকতার বিষয়ে জাহাংগীর আলম বলেন, "ছোটখাটো ৩০-৩৫টি জায়গায় ভোটকেন্দ্রের বাইরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। কোথাও আমাদের পুলিশ অফিসারের গাড়ির গ্লাস ভাংচুর করা হয়েছে। কোথাও ভোটকেন্দ্রের পাশে ককটেল ফোটানো হয়েছে। আমরা কমিশনের পক্ষ থেকে দু:খ প্রকাশ করছি।"