সাঈদ খোকন কেন মেডিকেল কলেজের সভাপতি, ব্যাখ্যা চায় হাই কোর্ট

সংসদ সদস্য হয়েও ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি হয়েছেন সাঈদ খোকন, যার বৈধতা নিয়ে চ্যালেঞ্জ করেছেন এক আইনজীবী।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Feb 2024, 10:19 AM
Updated : 18 Feb 2024, 10:19 AM

ঢাকা-৬ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ সাঈদ খোকনকে ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি নিয়োগ কেন অবৈধ নয়- তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট।

রোববার বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর বেঞ্চ এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে এ বিষয়ে রুল জারি করেছে।

সাঈদ খোকনকে ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের গভর্নিং বডির সভাপতি নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাই কোর্টে রিট আবেদন করেন অ্যাডভোকেট ইউনুল আলী আকন্দ।

রিটে শিক্ষা সচিব, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন কলেজ পরিদর্শক, মোহাম্মদ সাঈদ খোকন, ঢাকা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষকে বিবাদী করা হয়।

অ্যাডভোকেট ইউনুস আলী আকন্দ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “হাই কোর্ট ও আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত আছে কোনো সংসদ সদস্য কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান হতে পারবেন না। কিন্তু ওই সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করে ঢাকা-৬ আসনের সংসদ সদস্য সাঈদ খোকনকে কলেজের গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান নিয়োগ দেওয়া হয়।

“এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য গভর্নিং বডিতে একজন সদস্য নিয়োগ দিতে পারবেন; কিন্তু তিনি চারজন সদস্য নিয়োগ দিয়েছেন।”

এ আইনজীবী আরও বলেন, “গভর্নিং বাডিতে চেয়ারম্যান নিয়োগ দেয় সরকার। তবে সরকারের অনুমতি নিয়ে উপাচার্য নিয়োগ দিতে পারেন। কিন্তু এক্ষেত্রেও উপাচার্য সরকারের কোনো অনুমতি নেননি।”