খুলে গেল মেট্রোরেলের সব স্টেশন

এমআরটি-৬ লাইনের উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল রুটের ১৬টি স্টেশনের সবগুলোই চালু হল।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Dec 2023, 10:39 AM
Updated : 31 Dec 2023, 10:39 AM

দেশের প্রথম মেট্রোরেলের শাহবাগ ও কারওয়ান বাজার স্টেশন খুলে দেওয়া হয়েছে যাত্রীদের জন্য। এর মধ্য দিয়ে এমআরটি-৬ লাইনের উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল রুটের ১৬টি স্টেশনের সবগুলোই চালু হল।

রোববার সকালে এই দুই স্টেশন খুলে দেওয়ার পর থেকেই নিয়মিত যাত্রী ওঠানামা শুরু হয়।

এর আগে গত ১৩ ডিসেম্বর বিজয় সরণি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশন চালু করা হয়। এরপর অপেক্ষায় ছিল মাত্র এই দুই স্টেশন।

মেট্রোরেল পরিচালনকারী ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিটিএমসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক গত বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলন করে  কারওয়ান বাজার ও শাহবাগ স্টেশন খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেন।

শাহবাগের মেট্রো স্টেশনের একপাশে বারডেম জেনালের হাসপাতাল, অন্যদিকে ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

রাজধানীর ফার্মগেইট থেকে শাহবাগের বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা মো. শাহজাহান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, যানজটের হাত থেকে রক্ষা পেতে তিনি শাহবাগের স্টেশন খোলার অপেক্ষায় ছিলেন।

“রাস্তার যানজট আর বাসে ওঠানামায় জীবন দুবিষহ ছিল। ভিড়ের কারণে সবসময় বাসে উঠতেও পারতাম না। আজ আমি এই মেট্রোতে উঠে খুব সহজে বারডেম হাসপাতালে এসে ডাক্তার দেখিয়ে ফিরে যাচ্ছি। দেশের এই উন্নয়ন দেখে আনন্দ লাগছে।“

শাহবাগ স্টেশন খোলার দিন গুনছিলেন পরীবাগের বাসিন্দা চিকিৎসক ড. শুভ্রদেব, তিনি কাজ করেন আগারগাঁওয়ের পঙ্গু হাসপাতালে।

তিনি বলেন, “বাসা থেকে হাসপাতালে যেতে আগে প্রতিদিন বাস অথবা রাইড শেয়ারিং অ্যাপের যানবাহনে যেতাম। এতে আমার প্রচুর টাকা খরচ হয়েছে। কিন্তু আজ কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই নির্ধারিত সময়ে মেট্রোরেল ধরে যথা সময়ে পৌঁছে যাব বলে আশা করছি। “

এই চিকিৎসকের প্রত্যাশা, মেট্রোরেল রক্ষাণাবেক্ষণে এমআরটি কর্তৃপক্ষের ‘মনোযোগী’ থাকবে।

কারওয়ান বাজার স্টেশন ঘুরে দেখা যায়, সেখানে যাত্রীরা ভিড় করেছেন।

কারওয়ান বাজারের জামাল উদ্দিন নামের এক দোকানির বাসা মিরপুরে। এই স্টেশন চালু হওয়ায় ‘হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন’ বলে ভাষ্য এই দোকানির।

তিনি বলেন, “মিরপুর থেকে বাসে করে কারওয়ান বাজারে আসতে কী যে ঝামেলায় পড়ছি! সময় মতো আসতে পারতাম না। জ্যামে বাসের মধ্যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থাকতে হয়েছে, খুবই বিরক্ত লাগত। আজ মনে হল আমি উন্নত কোনো দেশের পরিবহন সেবা পাচ্ছি।“

দিনের মত রাতেও যাতে নির্ঝঞ্ঝাটে বাসায় ফিরতে পারেন, এজন্য এই রুটে ট্রেন চলাচলের সময় বাড়ানো দাবি রেখেছেন জামাল উদ্দিন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর মেট্রোরেলের উত্তরা উত্তর স্টেশন থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশে ট্রেন চলাচল উদ্বোধন করেন। এর পর ধাপে ধাপে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত নয়টি স্টেশন খুলে দেওয়া হয়।

উত্তরা-আগারগাঁও অংশ চালুর ১০ মাস সাত দিনের মাথায় গত ৪ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের উদ্বোধন করেন

বর্তমানে উত্তরা-আগারগাঁও অংশে মেট্রো চলছে সকাল সাড়ে ৭টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত। আর উত্তরা-মতিঝিল পথে চলছে সকাল সাড়ে ৭টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত।

ডিটিএমসিএল জানিয়েছে আগামী তিন মাসের মধ্যে উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত পুরো লাইনে সকাল ৭টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত মেট্রোরেল সেবা দেওয়া হবে।

বর্তমানে প্রতিদিন ১ লাখ ৩৫ হাজার থেকে সর্বোচ্চ ১ লাখ ৫৬ হাজার যাত্রী পরিবহন করছে মেট্রোরেল।

আরও পড়ুন:

Also Read: খুলে যাচ্ছে মেট্রোরেলের সব স্টেশন