রোহিঙ্গার পাসপোর্ট নবায়নে বাংলাদেশকে অনুরোধ সৌদি আরবের

যেসব রোহিঙ্গা বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ বিবেচনায় গিয়েছিল, শুধু তাদের পাসপোর্টই নবায়ন করার কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Nov 2022, 04:10 PM
Updated : 13 Nov 2022, 04:10 PM

সৌদি আরবে থাকা তিন লাখ রোহিঙ্গার পাসপোর্ট নবায়ন করতে বাংলাদেশকে অনুরোধ জানিয়েছে সৌদি সরকার।

রোববার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠকে ঢাকা সফররত দেশটির স্বরাষ্ট্র উপমন্ত্রী নাসের বিন আবদুল আজিজ আল দাউদ এ অনুরোধ জানান।

বৈঠক শেষে তিনি বলেন, “রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে তারা আমাদের জানিয়েছেন তিন লাখ রোহিঙ্গা সৌদি আরবে বসবাস করেন, তারা সেখানে ব্যবসা বাণিজ্য সবই করছেন। আমাদের কাছে তাদের (রোহিঙ্গাদের) পাসপোর্ট নবায়ন করে দিতে অনুরোধ করেছেন।

“আমাদের যে সিস্টেম, সেই অনুসারে পাসপোর্টগুলো নবায়ন আমরা করছি। আপনারা নিশ্চিয়ই জানেন, প্রায় ২৮ লাখ ৬০ হাজার বাংলাদেশি সৌদিতে বসবাস করছেন। বিভিন্ন পেশায় তারা নিয়োজিত। তাদের কেউ কেউ ব্যবসা করছেন। সেই ব্যবসায় যাতে আরেকটু সুবিধা পান, তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে। আমরা মনে করি, আমাদের সম্পর্ক আরও উন্নত হবে এই সফরে।”

আশির দশক থেকে বিভিন্ন সময়ে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট বা পরিচয়পত্র দেওয়ার জন্য কয়েক বছর ধরে বলে আসছে সৌদি আরব।

Also Read: ‘উচ্চ পর্যায়ের’ সংলাপে বাংলাদেশ-সৌদি আরব

Also Read: দেরিতে দাম দেওয়ার সুযোগে সৌদি তেল চায় বাংলাদেশ

রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট বিষয়ে রিয়াদের পক্ষ থেকে ঢাকাকে ‘হুমকি’ ও ‘চাপ’ দেওয়ার খবর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রকাশিত হলে, সেটি নাকচ করে দিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন। তবে বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে কেউ সৌদি আরব গিয়ে থাকলে তা নবায়নের সুযোগ দেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছিলেন।

রোববার ঢাকা সফরকালে সেই বিষয়টি আলোচনায় আবার তুলেছেন সৌদি উপমন্ত্রী।

সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ওই বৈঠকের পর সাংবাদিকরা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ওই সব রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পাসপোর্টে সৌদি গেছেন কি না তা জানতে চান। এর জবাবে কামাল বলেন, “প্রথমত তারা আমাদের দেশ থেকে গেছে, এটা সঠিক। কারণ তারা তাড়া খেয়ে বাংলাদেশে ঢুকেছে। তিন লাখ রোহিঙ্গা সৌদিতে গেছে। তারা সবাই আমাদের পাসপোর্ট নিয়ে যায়নি।

“কেউ কেউ নিজস্ব ম্যাকানিজমে গেছেন। এখন তাদেরই (সৌদি সরকার) অনুরোধে, এখান থেকে কীভাবে গিয়েছিল তা বিস্তারিত জানানো হয়েছে।”

তিনি বলেন, “তারা (সৌদি সরকার) বলছে, তারা বার্মিজ। এ কথাটি তারা বারবার বলছে, তারা বার্মিজ। তারা বাংলাদেশ হয়ে গেছে- এটা যেমন সত্যি, তেমনই বাংলাদেশের বাইরে থেকেও কিছুসংখ্যক গেছে। পাকিস্তান আমলে যারা গেছেন, তারা পাকিস্তানি পাসপোর্ট নিয়ে গেছেন।

“বাংলাদেশ আমলে যারা গেছেন, তারা সবাই কীভাবে গেছেন, কিছু সংখ্যক লোককে তাদের অনুরোধে পাসপোর্ট দেওয়া হয়েছিল। সেগুলো সম্পর্কে আমাদের রাষ্ট্রদূত যেটা বললেন, সেগুলোও প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে তারা সেখানে আছেন।”

যেসব রোহিঙ্গা বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ বিবেচনায় গিয়েছিল, শুধু তাদের পাসপোর্টই নবায়ন করা হবে জানিয়ে কামাল বলেন, “যারা বিশেষ বিবেচনায় গিয়েছিল, সেইগুলো শনাক্ত করে, আমরা যাদের পাসপোর্ট দিয়েছি, তাদের পাসপোর্ট নবায়ন করার ব্যাপারে আমরা ওয়াদাবদ্ধ। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর সেগুলো আমরা দেখব।"

এ বিষয়ে সৌদিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত জাভেদ পাটোয়ারী সাংবাদিকদের বলেন, “কিছু সংখ্যক রোহিঙ্গা বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে গেছেন। যেমন ওখানে এখন তিন প্রজন্মের রোহিঙ্গা আছেন। ষাট ও সত্তরের দশকে গেছেন, বাংলাদেশ হওয়ার আগেও পাকিস্তানের পাসপোর্ট নিয়ে গেছেন। তাদের সন্তান, নাতি-নাতনি হয়েছে। তিন প্রজন্ম ধরেই অনেক রোহিঙ্গা ওখানে বসবাস করছেন।

“তাদের পরিচয়পত্র দেওয়ার কথা বলেনি। বলছে যে বাংলাদেশি যারা ওখানে অবস্থান করছেন, যারা বাংলাদেশি এবং যাদের পাসপোর্ট নবায়ন করতে হবে, তাতে সহায়তা করার কথা বলা হয়েছে।”

এ সমস্যা সমাধানে সৌদি আরবে দুই দেশের একটি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপ কাজ করবে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

“ওইখানেও ওদের (সৌদি) রাষ্ট্রদূত ও উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। যখন যে সমস্যাটা আসবে, তারাই সেটা সমাধান করবে। তাৎক্ষণিক সমাধান করার জন্যই কমিটি তৈরি করা হয়েছে। 

“এই কমিটি বাংলাদেশি হিসেবে যার পাসপোর্ট নবায়ন করে দিতে হবে বলে মনে করবে, সঙ্গে সঙ্গে তারা তা করে দেবে। যাচাই-বাছাইও তারা করবে। কী কী যাচাই করা হবে, তা তারা ঠিক করবে। তবে আমাদের পাসপোর্ট যাদের আছে, তাদেরই প্রাধান্য দেওয়া হবে।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক