সুপ্রিম কোর্ট বারকে দলীয় রাজনীতি মুক্ত করতে ১১ দফা

আইনজীবী সমাজ ‘বিবদমান’ একটি গোষ্ঠীতে পরিণত হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে আক্ষেপ করা হয়।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Feb 2024, 12:47 PM
Updated : 15 Feb 2024, 12:47 PM

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতিকে দলীয় রাজনীতি মুক্ত করার পাশাপাশি ঐক্যবদ্ধ করতে ‘নির্দলীয় ঐক্যবদ্ধ বার আন্দোলন’ ব্যানারে ১১ দফা কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন একদল আইনজীবী। 

বৃহস্পতিবার দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট বারের ল রিপোর্টার্স ফোরাম কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তারা এ ঘোষণা দেন। এসব আইনজীবী দলীয় রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত নয় বলেই সুপ্রিম কোর্ট অঙ্গনে পরিচিত। 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নির্দলীয় ঐক্যবদ্ধ বার আন্দোলনের আহ্বায়ক সুরাইয়া বেগম। 

তিনি বলেন, “অবক্ষয়িত সমাজ ব্যবস্থার চাপে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। পরস্পরের প্রতি আস্থা হারিয়ে শত্রুতার গভীরে ডুবে গেছি আমরা। আমরা কেউ কাউকে বিশ্বাস করতে পারছি না।”

বর্তমানে আইনজীবী সমাজ ‘বিবদমান’ একটি গোষ্ঠীতে পরিণত হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে আক্ষেপ করা হয়। 

এতে এও বলা হয়, “দেশ ও জাতির স্বার্থে সুষ্ঠু বিচারব্যবস্থা পুনর্গঠন এবং আইনজীবীদের মর্যাদা সমুন্নত করতে ঐক্যবদ্ধ শক্তিশালী একটি বার প্রয়োজন, যা গণমুখী আধুনিক বিচারব্যবস্থার পূর্বশর্ত। 

“কিন্তু বর্তমানে রাজনৈতিক দলের প্রভাবে এই আইনজীবী সমিতি দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েছে।” 

ঘোষিত ১১ দফা   

  • সমিতি অঙ্গনকে দলীয় রাজনীতিমুক্ত করতে হবে।

  • নির্বাচন দলীয় নমিনেশন ও প্যানেলমুক্ত করতে হবে।

  • নির্বাচন পরিচালনার জন্য ইলেকশন সাব-কমিটির পরিবর্তে আর্থিক ও ভোটার লিস্ট তৈরি করার ক্ষমতাসম্পন্ন একটি স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে।

  • নিয়মিত-অনিয়মিত এবং সহযোগী সদস্যদের তালিকা প্রকাশ করে কেবল নিয়মিত সদস্যদের নিয়ে ভোটার তালিকা তৈরি করতে হবে।

  • নির্বাচনে মনোনয়ন ফি বাতিল করতে হবে।

  • কোনো আইনজীবী একই পদে দুইবারের বেশি নির্বাচন করতে পারবেন না।

  • কার্যনির্বাহী কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্তে ‘কিউবিকল’ বরাদ্দ করতে হবে।

  • সমিতির আয়-ব্যয়ের হিসাবে স্বচ্ছতা রাখতে ই-ম্যানেজমেন্ট পদ্ধতি চালু করতে হবে।

  • সভাপতি ও সম্পাদকের কর্তব্য ও ক্ষমতার ভারসাম্য আনতে হবে।

  • নতুন সদস্যের ক্ষেত্রে সদস্য ফি নির্ধারিত বার্ষিক চাঁদার অতিরিক্ত হতে পারবে না।

  • এসব প্রস্তাব কার্যকর করতে গঠনতন্ত্রে বিদ্যমান অনুচ্ছেদগুলোর বাস্তবায়নসহ প্রয়োজনীয় সংশোধন আনতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে নির্দলীয় ঐক্যবদ্ধ বার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক এম এ মজিদ ও সাইফুল ইসলাম এবং সদস্য সচিব শিব্বির আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।